বিশ্বজিৎ হত্যা মামলার রায় আজ

0
15
Print Friendly, PDF & Email

চাঞ্চল্যকর দর্জি ব্যবসায়ী বিশ্বজিৎ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা হবে আজ বৃহস্পতিবার। ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক এ বি এম নিজামুল হক এ রায় ঘোষণা করবেন।

গত বছরের ৯ ডিসেম্বর পুরান ঢাকার ভিক্টোরিয়া পার্কের উত্তরপার্শ্বে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার ক্যাডারা প্রকাশ্যে নির্মমভাবে বিশ্বজিৎকে কুপিয়ে হত্যা করে।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এ আদালতের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর এস এম রফিকুল ইসলাম।

পলাতক ১৩ আসামি গ্রেফতারে উদ্যোগ নেই:

মামলার আট আসামি গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। এরা হলেন রফিকুল ইসলাম শাকিল, মাহফুজুর রহমান নাহিদ, এমদাদুল হক এমদাদ, জি এম রাশেদুজ্জামান শাওন, এ এইচ এম কিবরিয়া, সাইফুল ইসলাম, কাইয়ুম মিঞা এবং গোলাম মোস্তফা। বিশ্বজিৎ এর ফুফাত ভাই অপু দাস ৩ সেপ্টেম্বর আদালতে সাক্ষ্য দেন।

অপু দাস প্রাইম নিউজ.কম.বিডিকে বলেন, ‘আমার মামাত ভাই বিশ্বজিৎকে কুপিয়ে যারা হত্যা করেছে তারা অনেকেই পালিয়ে আছে। অনেক দিন হয়ে গেল আমার ভাইকে ওরা হত্যা করেছে। হত্যা করে যদি তারা পালিয়ে থাকতে পারে, তাহলে পুলিশ কী করছে? পুলিশ আন্তরিক হলে আসামি পালিয়ে থাকতে পারে?’

আসামি গ্রেফতার প্রসঙ্গে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক তাজুল ইসলাম প্রাইমনিউজ.কম.বিডি বলেন, ‘আমরা বিশ্বজিৎ হত্যা মামলার আসামিদের ধরতে তৎপর রয়েছি। তের জন পলাতক আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা আছে। পরোয়ানা প্রত্যেক আসামির থানায় পাঠানো হয়েছে। আমরা নিয়মিত সংশ্লিষ্ট থানায় খোঁজ নিয়ে থাকি। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

পলাতক তের আসামি হলেন রাজন তালুকদার, ইউনুস আলী, ওবায়দুর কাদের তাহসিন, আজিজুর রহমান, আলাউদ্দিন, ইমরান হোসেন, মীর নূরে আলম লিমন, আল-আমিন, রফিকুল ইসলাম, কামরুল হাসান, তারিক বিন জোহর তমাল, মনিরুল হক পাভেল ও মোশাররফ হোসেন।

গত ১৮ জুন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আইন অধিবেশন-১ এ বিশ্বজিৎ হত্যা মামলাটি ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪ এ বদলির এক প্রজ্ঞাপন জারি করে। গত ২ জুন ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক জহুরুল হক এ মামলার ২১ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে।

এ মামলার ২১ আসামি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার কর্মী। গত ৫ মার্চ এ হত্যা মামলাটিতে অভিযোগপত্র দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক তাজুল ইসলাম।

Facebook Comments