দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট বঞ্চিত হচ্ছে ৫ কোটি ভোটার

0
6
Print Friendly, PDF & Email

গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করা নাগরিকের মৌলিক অধিকার। এ অধিকার প্রয়োগ করে ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করেন। কিন্ত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেশের অধিকাংশ ভোটার সেই অধিকার প্রয়োগ করতে পারবে না। এবারের জাতীয় নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগে বঞ্চিত হচ্ছেন প্রায় পাঁচ কোটি ভোটার।নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে জানা যায়, সর্বকালের রেকর্ড ভেঙে নির্বাচনের আগেই ৩০০ আসনের মধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় জয়ী হচ্ছেন ১৫৪ জন। তাই এসব আসনে ভোটা দেয়ার সুযোগ থাকছে না। তাই দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ ভোট দেবেন ১৪৬ আসনে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৯ কোটি ১৯ লাখ ৬৫ হাজার ৯৭৭ জন। এর মধ্যে ১৪৬ আসনের ৪কোটি ৩৬ লাখ ৮৫ হাজার ৬৭০ জন ভোটার তাদের অধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। আর বঞ্চিত হচ্ছেন ৪ কোটি ৮২ লাখ ৮০ হাজার ৩০৭ জন ভোটার।

এদিকে আবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার ‘প্রতিযোগিতায় জয়ী’ হয়েছে পাঁচটি জেলা- শরিয়তপুর, রাজবাড়ি, মাদারিপুর, জয়পুরহাট এবং চাঁদপুর। এসব জেলায় কোন আসনেই একাধিক প্রার্থী না থাকায় কোন নির্বাচনের প্রয়োজন হচ্ছে না।

উল্লেখ্য, ইসি ২৫ নভেম্বর দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। এতে ৫ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ, ২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময়, ৫ ও ৬ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই এবং মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৩ ডিসেম্বর নির্ধারণ করে ইসি।

এতে ইসিতে জমা পরে ১১০৭ টি মনোনয়নপত্র। যাচাই-বাছাই করে রিটার্নীং কর্মমর্তারা ২৬০ টি মনোনয়নপত্র বাতিল করে দেয়। এই বাতিল হওয়া ১২৫টি এবং বৈধ হওয়া ১৩ টি মনোনয়নপত্রের বিপক্ষে আপীল করা হয়। আপীল শুনানী শেষে ৪২টিকে বৈধ এবং বৈধ ৪টিকে অবৈধ ঘোষণা করে ইসি।

এ ছাড়া জাতীয় পার্টিসহ কয়েকটি দল ২৯৭ টি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। অবশেষে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪৬ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ৩৮৬ জন প্রার্থী।

Facebook Comments