খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৃটিশ হাইকমিশনের ৪৫ মিনিট বৈঠক

0
8
Print Friendly, PDF & Email

শ্রীপুর নিউজ: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার বাসভবনে ৪৫ মিনিট ধরে আলোচনা করলেন বাংলাদেশে যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার রবার্ট উইনিংটন গিবসন। তবে বৈঠকে কি নিয়ে আলোচনা হয়েছে তা জানা যায়নি।
বিকাল সোয়া পাঁচটার কিছুক্ষণ পর তিনি যান গুলশানে বিরোধীদলীয় নেতার বাসভবনে এবং প্রায় ৪৫ মিনিট পর তিনি বাসভবন থেকে বের হয়ে আসেন। যাওয়ার সময় তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।
গিবসনের সঙ্গে খালেদা জিয়ার এ বৈঠক ছিল একেবারেই আকস্মিক। বৈঠক শেষে বের হয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকরা তাঁর পিছু নিলেও তিনি সাংবাদিকদের এড়িয়ে যান। বৈঠকে কারা উপস্থিত ছিলেন তা জানা যায়নি। তবে এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসনের বাসায় যান দলের ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী ও চেয়ারপারসনের দুই উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান এবং সাবিহউদ্দিন আহমেদ।
১৮ দলের ঢাকামুখী অভিযাত্রা ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’কে ঘিরে দ্বিতীয় দিনের মতো নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ থাকা খালেদা জিয়ার বাসায় এই তিন উপদেষ্টাকে যেতে কোনো বাধা দেয়নি পুলিশ।
যদিও এরআগে বিএনপির আরেক ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান খালেদা জিয়ার বাসায় ঢুকতে গেলে তাকেসহ তিন মহিলা নেত্রীকে আটক করা হয়। আটকের এক ঘণ্টা পর তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়।
১৮ দলের কর্মসূচি ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’কে ঘিরে গত দুইদিন ধরেই খালেদা জিয়ার বাসভবনকে ঘিরে নিরাপত্তা কঠোর করেছে পুলিশ। রবিবার পুলিশের বাধায় খালেদা জিয়া ঘর থেকে বের হতে পারেননি। আজ দ্বিতীয় দিনও খালেদা জিয়া বাইরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে বিকালে গাড়িতে ওঠেন বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত কর্মকর্তারা। তিন্তু তাঁর গাড়ি ঘর থেকে বের হয়নি।
আজ দ্বিতীয় দিন সকাল থেকে গুলশানের ফিরোজা নামের বাড়িটির সামনে তৈরি করা হয় পুলিশি বেষ্টনী, সাজানো হয় তিন স্তরের নিরাপত্তা। তার বাসভবনের দুই পাশে সামনের রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখা হয় পাঁচটি বালুভর্তি ট্রাক। গণমাধ্যমকর্মীদেরও বাসার বেশ খানিকটা দূরে থেকে সংবাদ সংগ্রহ করতে বলা হয়।
বিএনপির একাধিক সূত্র জানায়, গতকাল থেকে চেয়ারপার্সন তার বাসভবনে একাকী রয়েছেন। তবে তার বাসভবনে কাজের মেয়ে ও তার নিজস্ব প্রটোকল রয়েছে।

Facebook Comments
শেয়ার করুন