ইসির হিসেবে ভোটের হার শতকরা ৩৭.৮৮

0
8
Print Friendly, PDF & Email

শ্রীপুর নিউজ: দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফলের পর্যালোচনায় দেখা গেছে ভোটারদের প্রদত্ত ভোটের হার ৩৭.৮৮ শতাংশ প্রায়। নির্বাচন কমিশন প্রদত্ত বেসরকারি ফলাফল হতে প্রাপ্ত তথ্য এবং নির্বাচনী এলাকার মোট ভোটার সংখ্যা পর্যালোচনা করে এ তথ্য পাওয়া যায়। তবে নির্বাচন কমিশন (ইসি) এ ব্যাপারে অফিসিয়ালি কোন বক্তব্য দেয়নি। যদিও নির্বাচন বিশ্লেষক ও অভিজ্ঞমহল নির্বাচন কমিশন থেকে ঘোষিত এ ভোট সংখ্যা নিয়ে ভিন্নমত প্রকাশ করেছেন। তারা মনে করেন, নির্বাচনের দিন ভোটকেন্দ্রে আগত ভোটার ছিল খুবই কম। এতে ১০ শতাংশের বেশি হতেই পারেনা। ফেমা ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনসহ দেশের প্রথম সারির গণমাধ্যম ব্যক্তিরা ভোটের হার ১০ শতাংশ বলে উল্লেখ করেছেন। ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪৭ সংসদীয় আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। দিন শেষে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তাদের পাঠানো রিপোর্ট অনুযায়ী বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। দেশের বিভিন্ন স্থানে রাজনৈতিক সহিংসতায় প্রায় চারশতাধিক ভোটকেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত করা হয়। এছাড়া দুর্গম পাহাড়ী এলাকার ফলাফল পৌঁছানোর বিলম্বের কথা উল্লেখ করে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রদত্ত ভোটের কোন সঠিক পরিসংখ্যাণ দিতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। ভোটের দিন কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি ছিল তুলনামূলক অনেক কম। প্রতিবেদকদের পাঠানো তথ্য অনুযায়ী নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের হার এবং রিটার্নিং কর্মকর্তাদের পাঠানো তথ্যের মধ্যে বেশকিছু পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। ভোটার উপস্থিতি পর্যালোচনায় প্রদত্ত ভোটের হার বিশ শতাংশের কম বলে মনে করেন নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা। কয়েকটি পর্যবেক্ষক সংস্থার প্রতিবেদনে দেখা যায় এ হার দশ বা তারও কম। স্থগিত আসনগুলোর মধ্যে আটটি আসনে পুনঃনির্বাচন এবং স্থগিত আসনে গুলোর নির্বাচন হলে এ হার আরও বাড়তে বা কমতে পারে। ৬ জানুয়ারি সকাল পর্যন্ত ইসির প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী দশম সংসদ নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের হার দাঁড়ায় ৩৭.৮৮ শতাংশ।

Facebook Comments
শেয়ার করুন