হাসিনা – ইনুর গোপন কথার ভিডিও ফুটেজ

0
11
Print Friendly, PDF & Email

সাংবাদিকদের চোখ ফাকি দেওয়া আজ বড় দুস্কর।হাজার হোক ডিজিটাল বাংলাদেশ বলে কথা।এবার  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে তথ্যমন্ত্রী হাসানুন হক ইনুর আড়ালের কথোপকথন ফাঁস হয়েছে। সোমবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন শুরুর আগ মুহূর্তে মাইক্রোফোন ও টেলিভিশনের বুম সামনে রেখেই নিচু স্বরে ইনুর সাথে কথা বলছিলেন। তাদের কথা একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচার হচ্ছিল। সেখানে তথ্যমন্ত্রী জাল ভোটের বিষয়টি ‘এভয়েড’ (এড়িয়ে যাওয়া) করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দেন।

সংবাদ সম্মেলনের পরপরই এর ভিডিও এবং অডিও ইন্টারনেটের মাধ্যমে ইউটিউব ও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

সেখানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুকে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলতে শোনা যায়, “আপনার সাথে অন্য বিষয়ে কথা বলতে চাচ্ছি।যাতে মানে.. জরুরি রাষ্ট্রীয় কাজ করতেছি।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সব রেকর্ড হয়ে যাচ্ছে.. আপনার সিক্রেট কথা।”

এরপর তথ্যমন্ত্রী বলেন, আপনার.. একটা পয়েন্ট নিয়ে আমি একটু ফেস করছিলাম। ওই জালভোটের ছবি দিছে তো, আমি উত্তর দিছি, জালভোটই যদি করতে হতো তাহলে আননাউড, আপনারা পড়েছে বলছেন দশ ভোট। সরকারের তো বহুত ক্ষমতা আছে, ফেক ভোট হলে তো সেভেন্টি পার্সেন্ট দেখাতাম। তাহলে কোনটা কারেক্ট? আন নাউড লো নাকি ফেক ভোটিং? তাহলে এটা বিচ্ছিন্ন বিক্ষিপ্ত ঘটনা, সব ভোটেই হয়, ক্ল্যাশ হয়, ভোট ছিনতাই হয়, ব্যালট পেপার কুড়িয়ে পাওয়া যায়, এইটা স্ট্রে (বিচ্ছিন্ন) ঘটনা, এটার সাথে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই। এবং নরমাল ইলেকশনেও আমাদের কিছু সেন্টার বন্ধ হয়ে যায়, স্থগিত হয়ে যায়, মানে আমি বলছি এটা এভয়েড করে যাওয়া আর কি জাস্ট। এই কোয়েশ্চেনটা যদি চলে আসে আর কি। আর এটা চমৎকার বিষয় ছিল, আঠার হাজার ভোট সেন্টার ছিল আমাদের, এইটিন থাউজেন্ট সেন্টার। সেখানে ইন্সপাইট সহিংসতা, মানে সহিংসতার পরেও, প্রতিরোধের ঘোষণার পরেও, আঠার হাজার জায়গায় ভোট হয়ে গেছে, এটি সফলতা, গণতন্ত্রের সফলতা, এবং সংবিধানের সফলতা, ওরা সংবিধানের বাইরে দেশটাকে নিয়ে যেতে চাচ্ছিল, আল্লাহ বাছাইছে, জনগণের সাপোর্ট আমরা সংবিধানের ভেতর রেখেছি। রাইগেন না.. হা হা হা।”

এ সময় হাসতে হাসতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “জাসদের মুখ দিয়ে এখন গণতন্ত্রের কথা শুনতে হচ্ছে..হা হা হা…।”

প্রধানমন্ত্রী আবারো একই কথা বলেন, “জাসদের কাছে গণতন্ত্রের কথা শুনতে হচ্ছে!”

এ সময় ইনু বলেন, “এটা অনএয়ার আছে। এগুলো সব অনএয়ার আছে।” তখন প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি জানি তো সব। সেজন্য বলে দিলাম।”

তখন ইনু বলেন, “ঠিক আছে। আসি যাচ্চে.. ইয়েতে.. আসি যাচ্চে..।”

প্রধানমন্ত্রী আবার বলেন, “আমি জানতাম তো যে সাউন্ডের দেরি হলেই…”

এরপর আর কিছু তেমন শোনা যায়নি। তবে শেষের দিকে শোনা যায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলছেন, “আমি বসি তাহলে। স্লামালাইকুম।”

Facebook Comments