কাপাসিয়ায় আ.লীগ সম্পাদক আরিফ বহিষ্কার

0
21
Print Friendly, PDF & Email

গাজীপুর নিউজ: গাজীপুর-৪ কাপাসিয়া আসনের সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমিকে অবরুদ্ধ করার অভিযোগে কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান আরিফকে দলীয় সকল পদ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। এই বহিষ্কার নিয়ে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে।

রোববার কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি মুহম্মদ শহীদুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে এই সংবাদ জানানো হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের  জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এক বর্ধিত সভা হয়। ওই বর্ধিত সভায় গাজীপুর-৪ কাপাসিয়া আসনের সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমির উপস্থিতিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান আরিফ সমর্থিতরা হাতাহাতি, ধাক্কা-ধাক্কি, হট্টগোল করতে থাকে। এক পর্যায়ে ওই বর্ধিত সভায় এমপি রিমিকে অনেকটা অবরুদ্ধ করে রাখার চেষ্টা করে। এ সংবাদ পেয়ে পুলিশ এমপি রিমিকে উদ্ধার করে উপজেলা পরিষদের দিকে নিয়ে যায়। পরে আরিফের নেতৃত্বে উপজেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল হয়।

বহিষ্কারাদেশ পত্রে উল্লেখ করা হয়েছে, উপজেলার বারিষাব ইউনিয়ন যুবলীগের সম্মেলনে আরিফের সমর্থিত কমিটি না হওয়ায় এমপি রিমি কাপাসিয়া আসার পথে রাস্তায় গাছপালা, বিদ্যুতের খুটি ফেলে ব্যাড়িকেড দেয় এবং রাস্তার দু’পাশের দোকানপাট, বাড়িঘর ভাঙচুর করে। উল্লেখিত অভিযোগের দায়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ৪৬(ক) ও (ঞ) ধারায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফকে দলীয় সকল পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে উপজেলা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রধানকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে

কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি মুহম্মদ শহীদুল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও এমপি রিমির সামনে হট্টগোল ও এমপি রিমিকে রাস্তায় বেরিকেট দেয়াসহ বিভিন্ন অপরাধে দলীয় সকল পদ থেকে আরিফকে  সাময়িকভাবে বরাখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না তার কার দর্শানোর জন্য সাতদিনের সময় দেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে আনিছুর রহমান আরিফের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি  মোঠো ফোন রিসিভ করেননি।

গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আমানত হোসেন খান বলেন, আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির সিদ্ধান্ত ছাড়া বা দলীয় প্রধানের আদেশ ব্যতিত কাউকে বহিষ্কার করা যায় না। কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি যদি কাউকে বহিষ্কার করে থাকেন তবে তিনিই দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন আমানত হোসেন খান।

ঘটনার জের ধরে ৪ ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন কাপাসিয়া কলেজের ভিপি জাহাঙ্গীর আলম (৩৫), কাপাসিয়া কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আদনান পারভেজ (২৫), কাপাসিয়া কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক জামান মোড়ল (৩২) ও শামীম (৩০)।

কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)  আহসান উল্লাহ জানান, শুক্রবার রাতে ওই ৪ জনকে গ্রেফতার করে শনিবার আদালতে পাঠানো হয়েছে। এদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলায় আদালতের একাধিক গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে।

আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে কাপাসিয়ায় একাধিক দলীয় প্রার্থী থাকায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। দলীয় মনোনয়ন সংক্রান্ত দ্বন্দ্বের জের ধরে এই ধরণের ঘটনা হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Facebook Comments