রাজনীতি-জনগণের প্রত্যাশা কী!!

0
15
Print Friendly, PDF & Email
Khaleda-Hasina-Ershad

সম্পাদক সার্জেন্ট মোঃ নাজমুল কবির (অবঃ), গাজীপুর নিউজ ২৪.কম। কথা বলছিলাম আমার বড় ভাই আব্দুল করিমের সাথে। তাকে জিজ্ঞেস করলাম করিম ভাই এবার কাকে ভোট দিয়েছেন। তিনি উত্তরে জানান, যারে দেওনের তারেই দিছিলাম, গৈ গেরামের মানুষ আমি রাজনীতি খুব কম বুঝি তয় এইডা বুঝি কারে ভোট দেওন লাগব। যারে ভোট দিছি হেয় ত আর পাশ করতে পারল না। জিজ্ঞেস করলাম কাকে ভোট দিয়েছিলেন? তিনি উত্তরে জানান, “যারেই দিছি নাম কমু না, তয় আমার ভোটখান কামে লাগে নাই, আজব দেশের মানু আমরা আমগর ভোটের কোন মূল্য নাই”। বলতে বলতে একটা দীর্ঘশ্বাস ফেলে আমার কাছ থেকে চলে গেলেন। আমি হতচকিত হয়ে ফেল ফেল করে তার চলে যাওয়া পথের দিকে চেয়ে রইলাম। এ কেমন বাস্তবতা।
স্বাধীনতার পূর্বে রাজনীতি সীমাবদ্ধ ছিল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিক। আর এখন সে রাজনীতি কলুষিত হয়ে এমন পর্যায়ে এসে পৌঁচেছে যেখান থেকে আমাদের বেড়িয়ে আসার পথ রুদ্ধ হয়ে গেছে। তবে এখনও যদি রাজনীতিবিদগণ তারা আদর্শগত রাজনীতি বলয় তৈরী করেন, দেশ ও জাতিকে আশার আলো দেখাতে পারেন। অন্ধকারের অমানিষা থেকে আলোর পথে বেড়িয়ে আসতে আমাদের সকল দলের রাজনীতিবিদদের একই সমান্তরাল রেখায় এসে গঠনমূলক রাজনীতি উপহার দিতে হবে, যদি তা না পারি তবে দিন দিন আমাদের রাজনীতি আরও কঠিন বাস্তবতার দিকে চলে যাবে। বন্ধুর গিরিপথ যতই কোমল হোক না কেন, তা পাড়ি দেয়া বড়ই কঠিন। দেশে আজ সুস্থ্য ধারার রাজনীতি নেই, নেই অহিংস রাজনীতি। আছে সহিংস,  হটকারিতা ও পরশ্রীকাতরতা। অনেক রাজনীতিবিদই রাজনীতিকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন। এ থেকে তাঁরা নিজেদের বিত্ত বৈভব ও আর্থিক ভাবে লাভবান হওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেন। তাছাড়া বিশ্ব রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটও দিন দিন পরিবর্তিত হচ্ছে। বিশ্ব পরিমন্ডলে মোড়লীপনা করার মানষিকতাই সব রাজনীতিবিদদের মধ্যে বাসা বেঁধেছে। দিন দিন বিশ্ব পরিমন্ডলে আসছে পরিবর্তনের হাওয়া। কুটনৈতিক দিক দিয়েও অর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল দেশগুলো আষ্টে পিষ্টে বাঁধা আছে ধনী দেশগুলোর কাছে।
যা বলতে চেয়েছিলাম মনে হয় তা থেকে অনেকটা অগোছালো কথা লিখে ফেলেছি। শেষ কথা হলো আগে জানতাম ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ বড়। আজ এর উল্টোটাই আমাদের দেখতে হয়। আর একটি কথা না বললেই নয়, জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস, এর বাস্তব রূপ বা বাস্তব প্রতিফলন আজও ঘটেনি। যাই হোক আমাদের ছোট্ট একটা দেশের মধ্যে অগণিত দল। দলের শেষ নেই, মত ও মতবাদেরও শেষ নেই। একেকটি দল চলে তাঁদের নিজস্ব গতিতে নিজস্ব ধারায়, আপন মহিমায়। দলীয় কোন্দল, রাজনৈতিক হটকারিতা, অহেতুক মিথ্যাচার ও অবাঞ্চিত কটুক্তি বাদ দিয়ে সকল দল দেশের বৃহত্তর স্বার্থে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজনীতির বলয় তৈরী করার জন্য আমার উদাত্য আহ্বান। আশা করি এ থেকে মুক্তির একটাই পথ ‘অহিংস ও জন কল্যাণমূলক রাজনীতি’। ভবিষ্যতে রাজনীতিবিদগণ জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করবে এটাই একমাত্র কাম্য।

Facebook Comments