সাত খুনে ছয় কোটি টাকা লেনদেন!

0
21
Print Friendly, PDF & Email
h 23394 0

ডেস্ক রিপোর্টঃ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর নজরুল ইসলামকে র‌্যাব তুলে নিয়ে গিয়ে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছেন নজরুলের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম ওরফে শহীদ চেয়ারম্যান। তিনি রবিবার সাংবাদিকদের জানান, এ ঘটনায় র‌্যাবের সিইও এবং আরও দুই মেজর মিলে ছয় কোটি টাকা নিয়েছেন। তবে এই টাকা কার কাছ থেকে কীভাবে র‌্যাবের সিইও নিয়েছেন তার বিস্তারিত তিনি বলেননি। এ সময় নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সাংসদ শামীম ওসমান সেখানে উপস্থিত ছিলেন। শহিদুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, ২৭ এপ্রিল দুপুরে যখন নজরুলসহ সাত জনকে দুটি গাড়িতে অপহরণ করা হয়। সেই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বালু শ্রমিকরা আমাদের জানিয়েছে, সে সময় র‌্যাব-১১ লেখা একটি গাড়ি (মাইক্রোবাস) ছিল। আমি সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমানকে জানাই। শামীম ওসমান আমাকে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে র‌্যাব-১১ সিইও এর সঙ্গে দেখা করতে বলেন। আমি সেখানে গেলে সিইও আমাকে ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে নানা রকম জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় শহীদুল অভিযোগ করে বলেন, র‌্যাবই আমার জামাতা নজরুলসহ ৭ জনকে খুন করেছে। শহিদুল ইসলাম বলেন, আমি অপহরণের ঘটনার পর পরই র‌্যাব-১১ সিইওসহ জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা করতে যাই। কিন্তু এসপি ও ফতুল্লা মডেল থানার ওসি তাদের বিরুদ্ধে মামলা নেননি। তারা আমাকে বলেন, সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা যাবে না। এই ঘটনার পর থেকে নিজেই নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। শহীদুল ইসলাম ওরফে শহীদ চেয়ারম্যান এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত র‌্যাব সদস্যদের শনাক্ত করে শাস্তি দাবি করেন

Facebook Comments
শেয়ার করুন