বলিউডের ইতি কথা

0
18
Print Friendly, PDF & Email
4 69797

ডেস্ক রিপোর্টঃ সেই পৃথ্বিরাজ কাপুরের বংশধর, অর্থাৎ রাজ, শশী কিংবা শাম্মী কাপুররা যখন থেকে সিনেমায় পা ফেলতে শুরু করেছেন তখন থেকেই বলতে গেলে দ্বিতীয় প্রজন্মের গোড়াপত্তন বলিউডে। তখনকার প্রজন্ম আর এখনকার প্রজন্মে যে আকাশ-পাতাল ফারাক সেটা অবশ্য কোনো যুক্তিতর্ক ছাড়াই অাঁচ করা যায় পরিস্থিতি বিচারে। কাপুরের বংশ দুইয়ের কোটা ছাড়িয়ে বহুদিন ধরেই দাপিয়ে বেড়িয়েছে তৃতীয় প্রজন্ম অবধি। তৃতীয় প্রজন্মে ঋষি কিংবা রনধীর কাপুর হয়ে সে ৯০ দশকের কারিশমা, ২০০০ সাল থেকে পা ফেলা কারিনা কিংবা হাল জামানার রনবীর বয়ে বেড়াচ্ছেন সে চতুর্থ প্রজন্মের হাল। এ সৌভাগ্যটা অবশ্য এখন অবধি বেশ দুষ্করই বলা চলে। কাপুর ছাড়া চার প্রজন্ম ধরে সিনে ইন্ডাস্ট্রিতে নাম লেখানোর সৌভাগ্য অর্জনকারীদের আরেকজন দত্তবাবু। সুনীল দত্ত-নার্গিসের পুত্র সঞ্জয় সিনেমা শিল্পে প্রতিষ্ঠা বহুদিন হলেও হালে তারই ধারাবাহিকতায় নাম লেখালেন সঞ্জয়পুত্র শাহরান দত্ত। বলিউডের এঙ্গরি ইয়ংম্যানরূপী অমিতাভ বচ্চন আর জয়া ভাদুড়ির সন্তান অভিষেক বাবা বিগবির জনপ্রিয়তার আকাশকে ছুঁতে না পারলেও সফল বলা চলে। অন্যদিকে বাবা সেলিম খান নিছক চিত্রনাট্যে কলমের মুন্সিয়ানা দেখালেও পরবর্তী প্রজন্মে এসে তিন পুত্র সালমান-সোহেল ও আরবাজ ঘাঁটি গাড়েন অভিনয়েই। খান সাম্রাজ্যের আরেক প্রতিভূ পরিচালক-প্রযোজক ভ্রাতৃদ্বয় তাহির ও নাসির খানের দ্বিতীয় প্রজন্মে তাহিরপুত্র আমিরকে এখন চেনেন না কে? সেদিক দিয়ে অবশ্য বাবা রাজেশ খান্নার অভিনয় প্রতিভা আর মা ডিম্পলের এক সময়কার সুপার সিঙ্টিন ইমেজের কিছুই আয়ত্তে আনতে পারেনি অভিনয়ে নাম লেখানো টুইঙ্কেল কিংবা রিঙ্কে। তবে সফলদের সারিটাও কম লম্বা নয়। বাবা রাকেশের ঠান্ডা মেজাজের অভিনয় যদিওবা খুব শিগিগিরই গিয়ে ঠেকে পরিচালনায়। কিন্তু দ্বিতীয় প্রজন্মে এসে বাবার ইমেজকে কয়েক ধাপ টপকে ঋতি্বক হালের বলিউড হাঙ্ক। ঠাকুর বংশের কন্যা শর্মিলার দুই সন্তান সাঈফ আর সোহা জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছেন। এদিকে অবশ্য ভাই সাঈফ এগিয়ে আছেন বোনের তুলনায় বেশ কয়েক ধাপ। হালে সাঈফ কারিনা কাপুরের পতি হলেও অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে তার বৈবাহিক সম্পর্কটাও ছিল বহুদিনের। সে সম্পর্কের ফসল সারা আলী খানও নাকি এবার নাম লেখাবেন অভিনয়ে, শোনা যাচ্ছে তেমনি। এককালের হলিউড হার্টথ্রব তনুজার দুই কন্যা কাজল আর তানিশা এখনও কাঁপান হালের যুবকদের হৃদয়। যদিও সাফল্যের দিক থেকে কাজলের ধারে-কাছেও ভিড়তে পারেননি তানিশা। অন্যদিকে কাজল পতি অজয় দেবগনও সদস্য এ দ্বিতীয় প্রজন্মেরই। বাবা ভিড়ু দেবগনের ফাইট মাস্টার ক্যারিয়ারে চরম অনুপ্রাণিত হয়েই মূলত সিনেমায় নাম লেখান অজয়। বাবা গীতিকার জাভেদ আখতার ও মা চিত্রনাট্যকার হানি ইরানির প্রতিভার ফসল ফারহান আখতার আর জোয়া প্রমাণ রেখে চলেছেন প্রতিনিয়ত তাদের মুন্সিয়ানার। অন্যদিকে গ্রহণযোগ্যতা যাই হোক না কেন, বাবা ধর্মেন্দ্রর যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে ববি কিংবা সানির দুর্দান্ত দাপটও কিন্তু কম সফল নয়। বনি-অনিল-সঞ্জয়ের পরিচালক-অভিনয় ভ্রাতৃত্রয়ের দ্বিতীয় প্রজন্মে সোনম আর অর্জুন বেশ ভালোই করছেন। বনি-শ্রীদেবীর মেয়ে জাহ্নবি কাপুরও জানা যায় আছেন নবাগতের মিছিলে। বাবা শক্তি কাপুরের কমেডি-ভিলেন রোলকে পাশ কাটিয়ে শ্রদ্ধা পুরোপুরি নায়িকা হতে চাইছেন সামনের সারির। যদিও অভিনেতা গোবিন্দ কন্যা নর্মদা পণ করেছেন বাবার মতোই কমেডিতেই থিতু হবেন। আর এ জন্যই আসি আসি করেও আসা হচ্ছে না তার সিনেমার দুনিয়ায়। অন্যদিকে রাজবাব্বর আর স্মিতা পাতিলের পুত্র হয়েও প্রতীক খুব একটা নিজেকে প্রমাণ করেতে পারেননি এখনও। বাবা যশ চোপড়া কিংবা যশ যোহরের পুত্র আদিত্য চোপড়া বা করন জোহর নিজ গুণেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন বাবার জায়গাতেই। চোপড়ার কনিষ্ঠপুত্র উদয় অবশ্য বাবার পরিচালনা-প্রযোজনায় মনোযোগী হলেও অভিনয়ও করছেন মাঝেমধ্যেই। অন্যদিকে এ ঘরানার আরেক প্রতিভূ ভাটকন্যা পূজা অভিনয় থেকে এখন বাবার নেপথ্যের দায়িত্ব বুঝে নেয়ার পর কনিষ্ঠ ভাটকন্যা আলিয়া বেশ ভালোই জায়গা করে নিয়েছেন পয়লা দু-তিনটি ছবিতেই। একই সময়ে নায়ক বনেছেন পরিচালক ডেভিড ধাওয়ানপুত্র বরুণ। অন্যদিকে বাবা জিতেন্দ্রর চকোলেটি হিরোর ইমেজটা পুত্র তুষার সারা জীবন ছুঁতে না পারলেও কন্যা একতা সেই ক্ষতিটা পুষিয়ে দিয়েছেন তার বালাজি দিয়ে। আবার কঠিন পুরুষ শত্রুঘ্ন সিনহাকন্যা সোনাক্ষীও বেশ সফল তার নায়িকা অভিযাত্রায়। একই ধারায় দক্ষিণী সুপারস্টার কমল হাসান ও অভিনেত্রী সারিকার কন্যা শ্রুতি এখনও তেমন একটা সাফল্য জোটাতে না পারলেও পরিচয়টা তৈরি হচ্ছে ধীরে ধীরে। ব্যর্থ বলা না গেলেও বাবা পঙ্কজ কাপুরের ব্যাপক অভিনয় মুন্সিয়ানার ধারেকাছেও পেঁৗছতে পারেননি পুত্র শাহেদ। শেষ কিন্তু এখানেই নয়, মিঠুন পুত্র মিমো, জ্যাকিশ্রফ পুত্র টাইগার থেকে শুরু করে এ প্রজন্মযাত্রা চলবে অবিরত।

Facebook Comments
শেয়ার করুন