উল্টোপথে আসলেই গাড়ি ফাঁদে

0
14
Print Friendly, PDF & Email
140083394214

গাজীপুর২৪.কম নিউজ ডেস্কঃ উল্টোপথে গাড়ি আসলেই সঙ্গে সঙ্গে স্বয়ংক্রিয় শাস্তির ফাঁদে পড়বে। মুহূর্তেই অকেজো হয়ে যাবে গাড়ির চাকা।  ট্রাফিক আইন অমান্য করা গাড়িগুলো এভাবেই উল্টো পথে আসার শাস্তি পাবে। পরবর্তীতে পুলিশ রেকার লাগিয়ে গাড়িটি নিয়ে যেতে পারে সংশ্লিষ্ট নিকটবর্তী থানায়।  ট্রাফিক আইন অমান্য করে উল্টোপথে আসা সব গাড়ির স্বয়ংক্রিয় শাস্তির ব্যবস্থা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ।

রাজধানীর হেয়ার রোডে শুক্রবার সকাল ১১টায় পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজি) হাসান মাহমুদ খন্দকার এই ‘স্বয়ংক্রিয় ডিভাইসের’ উদ্বোধন করেন।

ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারীদের মুখের কথায় সামলাতে না পেরেই এই ব্যবস্থা নিয়েছে  ট্রাফিক বিভাগ। উল্টোপথে আসা গাড়ি ঠেকাতে মাসখানেক আগে এই ডিভাইস বসানোর সিদ্ধান্ত হয়।

প্রথম দিকে হোটেল রূপসী বাংলা থেকে কাকরাইল মসজিদের দিকে যাওয়ার সময় রমনা পার্কের অরুণোদয় গেটের উল্টোদিকে এবং রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন সুগন্ধার পর এবং যমুনার সামনে (বর্তমানে ফরেন সার্ভিস একাডেমী) বসানো হয়েছে এ প্রতিরোধ ডিভাইস।

যেভাবে কাজ করবে ‘স্বয়ংক্রিয় প্রতিরোধ ডিভাইস : ট্রাফিক আইনের তোয়াক্কা না করে যেসব গাড়ি উল্টোপথে ছুটে যায় তাদের কপালে এখন থেকে সত্যি দুর্ভোগ নিশ্চিত।

উল্টোদিকে এলেই মুখোমুখি হতে হবে রাস্তা জুড়ে আড়াআড়ি পেতে রাখা বিশেষ ধরনের প্রতিরোধ ডিভাইসের। ওই ডিভাইসের সুচারু ডগা মুহূর্তেই টায়ার ভেদ করে গাড়ির চাকাকে অকেজো করে দিবে। সোজা পথে গাড়ি চালিয়ে গেলে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু উল্টোপথে এলেই এই বিপদে পড়বে গাড়ি।

প্রতিরোধ ডিভাইস যন্ত্রের ধারালো কাঁটা ৪৫ মিলি মিটার পরপর বসানো হয়েছে। এটা রাস্তার ওপর সব সময় তিন ইঞ্চি উঁচু হয়ে দাঁড়িয়ে থাকবে। সোজা দিক দিয়ে আসা গাড়ির চাকা এ ডিভাইসের ওপর চাপ দেয়া মাত্রই ওই কাঁটাগুলো নিচু হয়ে গাড়িকে চলে যেতে দিবে। আর গাড়ি যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কাঁটাগুলো আবার উচু হয়ে যাবে।

উল্টোদিক দিয়ে আসা গাড়ি ডিভাইসে চাপ দিলেই ডিভাইসের ধারালো কাঁটার সুচালো মাথা চাকার ভেতর প্রবেশ করে টায়ার ও টিউব অকেজো করে দেবে। এই যন্ত্রের প্রতিটি কাঁটা আলাদা আলাদা বসানো। প্রতিটি কাঁটাকে নিচু করতে আট থেকে দশ কেজি চাপ প্রয়োজন হবে। প্রতিরোধক এই যন্ত্রটি রাস্তার ওপর একটি গতিরোধকের মতো কাজ করবে। তাই এর ওপর দিয়ে ধীর গতিতে চলার পরামর্শ দিয়েছেন ট্রাফিক কর্মকর্তারা।

Facebook Comments
শেয়ার করুন