টঙ্গীতে সামান্য বৃষ্টিতেই জলজট

0
11
Print Friendly, PDF & Email
1403277192

স্টাফ রিপোর্টার: মহানগরী (টঙ্গী) অঞ্চলের ৪৫ ওয়ার্ডের রাস্তা ও স্যুয়ারেজের অবস্থা এতটাই শোচনীয় যে, চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তা, বাসা-বাড়ি, দোকান-পাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পানিতে একাকার হয়ে যায়। সিটি করপোরেশন মেয়র ও কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার এক বছরেও ড্রেনেজ, রাস্তার সংস্কার কিংবা এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ হয়নি । অথচ ট্যাক্স আদায় করছে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে গ্যাস সঙ্কট। সেই সঙ্গে মশার উপদ্রব। টানা বর্ষণে নগরীর অধিকাংশ এলাকায় জলজটের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিতে পানি জমে ডুবে গেছে রাস্তা-ঘাট। অনেক এলাকায় বাসা-বাড়ির নিচতলা ও দোকানে পানি ঢুকে গেছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন নগরবাসী। এলাকার বাসা বাড়ির বর্জ্য ফেলার স্থান না থাকায় বর্জ্য ফেলতে সমস্যা পড়তে হয়, পৌর সভা থাকাকালীন ড্রেনেজ গুলো ময়লা ও বর্জ্যে প্রায় অকেজো । ময়লা উপচে রাস্তা সয়লাব হয়ে যায়। অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে ৪৫ নং ওয়ার্ডের প্রায় ২ লাখ মানুষ। এ প্রসঙ্গে ৪৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহ আলম রিপন বলেন, সিটি করপোরেশনের ফান্ডে টাকা নেই । আমরা কোন টাকা পাচ্ছিনা কাজ করব কি দিয়ে। এলাকাবাসির অভিযোগ সিটি করপোরেশন থেকে যে টাকা বরাদ্দ আসে তা ড্রেনেজ পরিস্কার না করেই বিল পাশ করিয়ে নেয়। সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তা, বাসা-বাড়ি, দোকান-পাট, হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পানিতে একাকার হয়ে যায়। ৪৫ নং ওয়ার্ডটি সাবেক টঙ্গী পৌর সভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে অবস্থিত। ‘৭৫ সালের পর থেকে ধীরে ধীরে খালি জমি ও মাঠ  বিলীন হতে থাকে। নব্বই দশকের পর পুরো কৃষি জমি- মাঠ বিলীন হয়ে যায়। বর্তমানে বহুতল ভবন ও  অসংখ্য হোল্ডিং আছে। প্রায় ২ লাখ লোকের বসবাস। সরেজমিন দেখা যায়, বর্তমানে রাস্তার অবস্থা খুবই জরার্জীণর। পাশাপাশি স্যুয়ারেজের পানিতে রাস্তা সয়লাব হয়ে আছে। এসব এলাকার বিভিন্ন সড়কে পানি ঢুকে ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিকল হয়ে পড়ে থাকতে দেখা গেছে অনেক যানবাহন। জলজটের কারণে রাস্তায় রিক্সা ট্যাক্সিসহ গণপরিবহণ চলাচল কমে যাওয়ায় কোমর পানি হেটে চলাচল করতে হচ্ছে নগরবাসীকে। এলাকাবাসী জানান, দিনের বেলায় গ্যাস থাকে না। গত এক বছরে মশা নিধনে সিটি করপোরেশন থেকে লোক আসেনি। নগরীর ৪৫ নং ওয়ার্ড পূর্ব আরিচপুর উত্তর পাড়ার বাসিন্দা আবুল কাশেম বলেন,‘বাসায় প্রায় হাটু পরিমাণ পানি। পানি যে বের করবো সে সুযোগ নেই। এ অবস্থা থেকে আমাদের আর পরিত্রান হলো না।’

Facebook Comments
শেয়ার করুন