গাজীপুরে অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জামসহ গ্রেপ্তার ১

0
12
Print Friendly, PDF & Email
ashik rab 12.11.14 39951 0

স্টাফ রিপোর্টার: গাজীপুরের নয়নপুর এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ অবৈধ ভিওআইপি দ্রব্যসহ মোহাম্মদ আল আমিন (২৮) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। রবিবার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। র‌্যাব-২ এর অপারেশন অফিসার ও সহকারী পুলিশ সুপার মারুফ আহমেদ বলেন, রবিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে গাজীপুরের নয়নপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আল আমিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময়ে তার কাছ থেকে বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির ১৭৮ টি সিম, রাউটার, টু-পোর্ট ক্যাবল, সার্ভার ল্যাপটপ, মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার আল আমিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় যে, সে দীর্ঘদিন যাবৎ অভিনব  পন্থায় রিমোট এ্যাকসেস পদ্ধতি ব্যবহার করে ভিওআইপি ব্যবসা করে আসছিল। এই পদ্ধতিতে একটি সফটওয়্যার ল্যাপটপ ব্যবহার করে যেসব জায়গায় দ্রুতগতির ইন্টারনেট রয়েছে, সেখানে ভিওআইপির সরঞ্জামাদি স্থাপন করে দূরবর্তী অঞ্চল থেকে তা নিয়ন্ত্রণ করা হত। এক্ষেত্রে আল- আমিন তার মোবাইল ও ল্যাপটপে টিম ভিউয়ার নামক সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতেন রিমোট অ্যাকসেসের জন্য। এর কাজ হল অবৈধ ভিওআইপি চ্যানেল বক্স ও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসায়ীকে যাতে একসাথে ধরা না যায়। এছাড়া এই সফটওয়্যার ব্যবহার করে ওই আসামি তার নিকট হতে কেনা ভিওআইপি ব্যবসার সরঞ্জাম ক্রেতাদের অনলাইন টেকনিক্যাল সাপোর্ট দিয়ে থাকে । ভিওআইপি ব্যবসা সংক্রান্ত সকল আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে আল-আমিন তার ব্র্যাক ব্যাংকের অনলাইন ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতেন। এছাড়া অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা মনিটর করার জন্য সে বিদেশ থেকে কেনা “ভিপিএন” (ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক ) এর র্সাভারের সাথে সরবরাহ করা “এসবিও” সফটওয়্যার  ব্যবহার করতেন। বিটিআরসির প্রতিনিধি দল ওই এসবিও সফটওয়্যার পর্যালোচনা করে দেখেন, ওই সফটওয়্যারটির মনিটরিং এ্যাডমিন হিসাবে আল-আমিনের নাম উল্লেখ করা আছে। এছাড়া ওই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে আসামি ড্যাশবোর্ডের ম্যাধমে তার অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসার ইনকামিং কল গুলো মনিটরিং করতেন। গ্রেপ্তার মোহাম্মদ আল আমিন গাজীপুর জেলার সদর থানার নয়নপুর গ্রামের মৃত আলা উদ্দিনের ছেলে।

Facebook Comments
শেয়ার করুন