কাপাসিয়ায় অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

0
22
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার: কাপাসিয়া উপজেলার সন্মানিয়া ইউনিয়নের মির্জানগর গ্রামে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নির্ধারিত নতুন লাইন স্থাপনে ঠিকাদারদের সহযোগিতায় একটি দালাল চক্র সাধারণ গ্রাহকদের নিকট থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে এলাকার দরিদ্র নিরিহ এক রিক্সা চালক গ্রাহক সিরাজ উদ্দিন, আবুল হোসেন ও আব্দুল্লাহ বাদী হয়ে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির চেয়ারম্যানের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। লিখিত অভিযোগে জানা যায়, স্থানীয় আড়াল জিএল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোস্তফা, মির্জানগর গ্রামের বারেকের পুত্র লিটন, আফসারের পুত্র হিরন, আশু মেকারের পুত্র লোকমান, সায়েদ আলীর পুত্র মোকলেছ, ছানা মিয়া, নয়ন, মানিকসহ একটি সঙ্গবদ্ধ দল বিদ্যুৎ লাইন দেয়ার নামে এলাকার সাধারণ মানুষদের সাথে প্রতারনা করে বিপুল অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। নতুন লাইন স্থাপনের জন্য পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নিদিষ্ট ঠিকাদাররা তাদের ডিজাইন অনুযায়ী কাজ করার কথা। কিন্তু ঠিকাদাররা দালালদের প্ররোচনায় সাধারণ গ্রাহকদের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ লাইন দেয়ার কথা বলে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে। দালালরা গ্রাহকদের নিকট থেকে জন প্রতি গড়ে ১৫/ ২০ হাজার টাকা করছে। অথচ পল্লী বিদ্যুতের একটি লাইন স্থাপনের জন্য মাত্র ৬২০ টাকা খরচ হওয়ার কথা। মির্জানগর গ্রামের বড় মসজিদ থেকে সিরাজের বাড়ি পর্যন্ত ৬০ জন গ্রাহকের স্থলে অতিরিক্ত লাইন স্থাপন করা হচ্ছে। এছাড়া একই ধারন ক্ষমতার আরো ৬ টি ইউনিটে লাইন স্থাপনের কাজ চলছে। ৬টি ইউনিটে ৩ শত ৬০ জন গ্রাহকের স্থলে অতিরিক্ত গ্রাহক বানিয়ে ৭/৮ শত লাইন স্থাপনের পায়তারা করছে।  তাদের নিকট থেকে জন প্রতি ১৫/২০ হাজার টাকা নেয়া হচ্ছে। স্থানবেধে অনেকের নিকট থেকে ৩০ হাজার টাকা আদায় করারও অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি ওই গ্রামের সাধারণ গ্রাহকরা স্থানীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উর্ধ্বতণ কর্মকর্তাদের নিকট প্রতিকার প্রতিকার চেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

Facebook Comments
শেয়ার করুন