আগামী ২০১৯ সালের আগে দেশে কোন নির্বাচন হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

0
21
Print Friendly, PDF & Email
Bogra-07-05-15-Picture-01

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, আগামী ২০১৯ সালের আগে দেশে কোন নির্বাচন হবেনা। তিনি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ওই নির্বাচনের প্রস্তুতি ও অংশ নেবার আহবান জানিয়ে বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার নয়; শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ওই নির্বাচন হবে। আর নির্বাচনে এলে মাঠে বাংলার টাইগাররা যেভাবে পাকিস্তানকে হোয়াইট ওয়াশ করেছেন, তেমনি বিএনপিকে ওয়াশ করা হবে।

বৃহস্পতিবার বিকালে বগুড়া শহরের শহীদ খোকন পার্কে জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সিটি নির্বাচনে বিএনপি নেত্রী বিপ্লবের ঘোষণা দিয়েছিলেন। কর্মী না থাকায় দোকানে দোকানে গিয়ে ভোট চেয়েছেন। কিন্তু ভোট শুরুর চার ঘন্টা পর নিজেদের গুটিয়ে নিয়ে প্রমাণ করেছেন, পরাজয়ের ভয়েই তিনি নির্বাচন থেকে পালিয়েছেন।

এ কারণে জনগণ আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। তিনি খালেদা জিয়াকে জামায়াত ছাড়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন, যুদ্ধাপরাধী, খুনি ও স্বাধীনতা বিরোধীদের সাথে আঁতাত করার কারণেই দলের অনেক নেতা তাকে (খালেদা) ত্যাগ করেছেন। তাই খালেদা জিয়াকে ১৯৭১ সালের ঘাতকদের ত্যাগ ও অতীতের ভুল স্বীকার করে জনগণের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে দেশে জঙ্গিবাদের উত্থান ও সন্ত্রাস বৃদ্ধি পায়। আর শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এলে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বয়ে যায়। আওয়ামী লীগ সরকার সারাদেশে সমউন্নয়নে বিশ্বাসী। তাই শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়ায় এসে এখানে সিটি কর্পোরেশন, পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন কাজের ঘোষণা দিবেন।

এছাড়া বঙ্গবন্ধ সেতুর পশ্চিম তীর থেকে সিরাজগঞ্জ ও বগুড়ার উপর দিয়ে কুড়িগ্রাম পর্যন্ত চারলেনের সড়কসহ ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ হবে। এতে এ অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারসহ অনেক উন্নতি হবে।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ.এম. বদিউজ্জামান সম্মেলনের উদ্বোধন করেন, বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আল রাজি জুয়েলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাশরাফি হিরোর সঞ্চালনায় সম্মেলনের প্রথম পর্বে অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, বগুড়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল মান্নান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম, সহ-সভাপতি শাহীন আহমেদ ও মোরশেদুল আলম চৌধুরী, স্কুল ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক হাসানুল হক বান্না, উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মারুফ বিল্লাহ, সহ-সম্পাদক সারোয়ার কবীর কুশল, নির্বাহী সদস্য সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। উপস্থিত ছিলেন, বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক টি. জামান নিকেতা, জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোলায়মান আলী, আসাদুর রহমান দুলু, সুলতান মাহমুদ খান রনি, সাজেদুর রহমান শাহীন, জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর ডালিয়া নাসরিন রিক্তা, শহিদুর রহমান বাপ্পী, দিলরুবা আমিনা সুইট প্রমুখ।

আবদুল মান্নান এমপি বলেন, খালেদা জিয়া গত তিন মাসে পেট্রলবোমা মেরে প্রায় ২০০ মানুষকে হত্যা করে সরকারকে উৎখাত করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তার ওই ষড়যন্ত্র সফল হয়নি।

Facebook Comments