কালিয়াকৈরে শিশু অপহরণের পর হত্যা, নারী অপহরণকারীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

0
26
Print Friendly, PDF & Email
kaliakoir-map

হুমায়ুন কবির,কালিয়াকৈর প্রতিনিধি: কালিয়াকৈর উপজেলার সোনাতলা এলাকায় বুধবার রাতে নিশিতা আক্তার নামে ৪০ দিন বয়সের এক শিশুকে অপহরণের পর হত্যা করা হয়েছে। শিশুটি অপহরণ করে পালানোর সময় এলাকাবাসী এক নারীকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। শিশুটি নিয়ে ওই অপহরণকারী পালিয়ে যেতে ব্যর্থ হয়ে পাশের পুকুরে ফেলে দিলে ঘটনাস্থলেই শিশুটি মারা যায়। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে গাজীপুর তাজউদ্দিন আহম্মদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন।

নিহত শিশু নিশিতা গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সোনতলা এলাকার আক্কাছ মিয়ার ছেলে।

নিহতের পারিবারিক সুত্র জানায়, বুধবার রাত ৯টার দিকে মোঃ আক্কাস আলীর স্ত্রী নার্গিস আক্তার তার শিশু কন্যাকে ঘুমিয়ে রেখে বাথরোমে যায়। বাথরোম থেকে বেড়িয়ে শিশুটি ঘরে দেখতে না পেয়ে চিৎকার করতে থাকে। বাড়ির আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে শিশুটি খোজাখুজি করতে থাকে।

শিশু অপহরনকারী ঝর্ণা আক্তার ওরফে বন্যা আক্তার (৩০) নামের নারীকে দেখে এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে এলাকাবাসী তাকে আটক করে গণধোলাই দেয়। একপর্যায়ে ওই নারীর শিকারোক্তি অনুযায়ী পাশের পুকুরে ওই শিশুর লাশ পাওয়া যায়। রাত ৩ টার দিকে শিশুর লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। অপহরণকারীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আটককৃত বন্যা ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার শিমলাপাড়া এলাকার রুপে মিয়ার মেয়ে।

কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) আজিম হোসেন জানান, শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আটককৃত নারী মানসিক ভারসাম্যহীন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Facebook Comments