শ্রীপুরে অতি বৃষ্টিতে কয়েকশ পরিবার পানিবন্দি; তলিয়ে গেছে ফসলের জমি রাস্তাঘাট

13
11701212 454401194721294 13

শ্রীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় বেশ কয়েকদিন যাবৎ টানা প্রবল বর্ষনে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট, ফসলের জমি ও মাছের খামার। উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের আবদার গ্রাম জৈনা বাজার সংল্গন ও ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের নগর হাওলা উত্তর পাড়া এই দুই ইউনিয়নের দুই গ্রামের শত শত পরিবার পানি বন্দি অবস্থায় জীবন যাপন করছেন। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, এলাকার কিছু সংক্ষক কল-কারখানা স্থাপনের মাঝে পানি চলাচলের জায়গা মাটি দিয়ে বরাট এবং জৈনা বাজারের সকল বর্জ্য দিয়ে সরকারী খাল ও পানি যাওয়া যায়গা বরাট করার কারনে অল্প বৃষ্টি হলেই ঘর বাড়ীতে পানি ওঠে পানিবন্দি হয়ে পরছে হাজার হাজার মানুষ। স্থানীয় লোকজন জানান, হাঁস,মুরগী,ছাগল,গরুসহ সকল গবাদী পশু নিয়ে বিপদের মধ্যে আছেন তারা। চুলার ভিতরে পানি থাকার কারনে আগুন জলেনা, রান্ন বান্নাও বন্ধ চিরা মুড়ি খেয়ে জীবন পার করছেন বলেও যানায় পানি বন্দি মানুষেরা।

এদিকে পৌরসভার বেড়াইদেরচালাসহ বিভিন্ন এলাকায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েকশ পরিবার। মাছের খামার ভেসে গিয়ে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৫০ লাখ টাকা। রমজানের শুরু থেকেই থেমে থেমে ভারী বৃষ্টির ফলে ভরে গিয়েছিল শ্রীপুর উপজেলার নিম্নাঞ্চলের মাছের খামার, ফসলী জমি ও নিঁচু এলাকার মাঠঘাট। শুক্রবার রাতভর প্রবল বর্ষনে উপজেলার পৌর এলাকার বেড়াইদেরচালা, গিলাবেড়াইদসহ নিম্নাঞ্চল সম্পূর্ন প্লাবিত হয়েছে। পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পানিবন্দি হয়ে আছে প্রায় কয়েকশ পরিবার। এছাড়া কাওরাইদ, বরমী, রাজাবাড়ী, গোসিংগা ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলের বহু মাছের খামার ভেসে গেছে। উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা বদিউজ্জামান জানান, অতিবৃষ্টিতে ভেসে মাছের খামারগুলোতে প্রায় ৫০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে পার্শ্ব সড়ক ও সংযোগ সড়ক ডুবে যাওয়ায় যানবাহন চলাচল বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। ডুবে গেছে শত শত বিঘা আমন ধানের বীজতলা। পর্যাপ্ত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় তলিয়ে যাওয়া ধানের ক্ষতির আশংকা করছে কৃষকরা। এদিকে শ্রীপুর পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে পর্যাপ্ত পানি নিস্কাশনের ড্রেন না থাকায় শ্রীপুর থানার মোড়, সবুজ বাগ এলাকা, শান্তিবাগ এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। এ ব্যাপারে শ্রীপুর পৌর মেয়র মো: আনিছুর রহমান জানান, অবিলম্বেই এসব জলাবদ্ধতা দুর করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।

Facebook Comments