গাজীপুরে নববধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

12

স্টাফ রিপোর্টার: ২৯ জুলাই বুধবার বিকেলে গাজীপুরের পূর্ব চান্দনা এলাকা থেকে নুসরাত জাহান রুমি (১৮) নামে এক নববধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মো. হাসান পলাতক রয়েছেন। জয়দেবপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুল জলিল জানান, দেড় মাস আগে স্থানীয় আবুল কাশেমের বাড়ির ভাড়াটে মো. হাসানকে ভালোবেসে বিয়ে করেন রুমি। কুমিল্লার হাসান তার ভাই রাসেল ও ভাবী নূরজাহানের সঙ্গে একই মালিকের অপর একটি বাড়িতে ভাড়া থেকে গ্যারেজে কাজ করতেন। ঈদের ২-৩ দিন আগে কেনাকাটা নিয়ে হাসানের ভাবীর সঙ্গে মনমালিন্য হয়। এনিয়ে হাসানের সঙ্গেও রুমির সম্পর্কের অবনতি হয়। উভয়পক্ষের অভিভাবকদের অমতে তারা বিয়ে করেন। এ নিয়ে হাসানের সঙ্গে তার ভাই-ভাবীর মাঝে মধ্যেই কলহ হতো। তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার রাতে স্বামী-স্ত্রী একই ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। বুধবার দুপুরে ঘরে তালা দেখতে পেয়ে বাড়ির লোকজন হাসান ও তার ভাই-ভাবীদের খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা হাসানের ঘরের খাটের ওপর রুমির লাশ পড়ে থাকতে দেখে। পরে বিষয়টি হাসান ও রুমির বাবাকে জানানো হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘরের তালা ভেঙে বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে লাশ উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। হাসানের ভাই রাসেল ও ভাবী নূরজাহান স্থানীয় হাসান-তানভীর ফ্যাশন নামে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। ঘটনার পর থেকে তারাও পলাতক রয়েছেন। নিহত রুমির বাবা স্থানীয় একটি হোটেলে বাবুর্চির চাকরি করেন। নিহতের নাক দিয়ে রক্ত ঝরার চিহ্ন রয়েছে। তাকে শ্বাসরোধে করে হত্যা করা হয়েছে কিনা তা ময়নাতদন্তের পর বলা যাবে বলেও জানান এসআই আব্দুল জলিল। নিহত নুসরাত জাহান রুমি নওগাঁ সদর উপজেলার মো. রফিকুল ইসলামের মেয়ে এবং স্থানীয় চান্দনা স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছিলেন।

Facebook Comments