কালীগঞ্জে হত্যা মামলায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ দুইজন কারাগারে

13

স্টাফ রিপোর্টার: কালীগঞ্জ উপজেলার বহুল আলোচিত ব্যবসায়ী ও যুবলীগ কর্মী মামুন হত্যা মামলার প্রধান আসামী মোক্তারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরীফুল ইসলাম তোরনসহ তার এক সহযোগী কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ প্রদান করেন গাজীপুর জেলা জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত। ৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই রায় প্রদান করেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের বড়গাঁও গ্রামের বালু ব্যবসায়ী ও যুবলীগ কর্মী মো. মামুন হোসেনকে ২০১২ সালের ২৮ মে কালীগঞ্জ থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিপেন চন্দ্র দে একান্ত সহযোগীতায় প্রতিপক্ষের লোকজন কুপিয়ে হত্যা করে। পরে ওই ঘটনায় নিহত মামুনের বড় ভাই নাজমুল ইসলাম বাদী হয়ে মোক্তারপুর ইউপি চেয়ারম্যান শরীফুল ইসলাম তোরনকে প্রধান আসামী করে এসআই নিপেনসহ মোট ২১ জনের নামে কালীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি গাজীপুর গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করে ২৩ জনের নামে চুড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেন। ওই মামলায় আজ বৃহস্পতিবার ৭ জন আসামী আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান শরীফুল ইসলাম তোরন ও বড়গাঁও গ্রামের নুরুল হকের ছেলে মো. মোমেনকে জেল হাজতে পাঠানো নির্দেশ প্রদান করেন গাজীপুর জেলা জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত। এছাড়া একই মামলার আসামী শ্যামল দফেদার, চিনিবাস চৌকিদার, জাহাঙ্গীর, কাউছার এবং ওই চেয়ারম্যানের ছোট ভাই মো. ইরান হোসেনকে জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। গাজীপুর আদালতের পরিদর্শক মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ব্যবসায়ী মামুন হত্যা মামলায় দুই জনকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

Facebook Comments