কাপাসিয়ায় পান দোকানীর বসতভিটা জবর দখল

0
32
Print Friendly, PDF & Email
kapaaaaaaaaa

কাপাসিয়া উপজেলার ঘাগটিয়া চালার বাজারের দরিদ্র অসহায় ও নিরীহ পান দোকানী শহিদুল্লাহর পৈত্রিক বাড়ি ভিটা প্রতিবেশী ফজলুল হক গংরা জোরপূর্বক দখল করে নিয়েছে। প্রতারণার মাধ্যমে জাল দলিল করার চেষ্টাকালে আদালত তা বাতিল করে দেয়। এ ব্যাপারে গাজীপুর আদালতে একাধিক মামলা রয়েছে। প্রান নাশের হুমকীর ভয়ে শহিদুল্লাহ্ বাদী হয়ে গত ৩ নভেম্বর কাপাসিয়া থানায় সাধারণ ডায়রী (নং- ১২৪) করেছে।
জানা যায়, উপজেলার ঘাগটিয়া গ্রামের আইজ উদ্দিনের পুত্র দরিদ্র অসহায় শহিদুল্লাহ্ চালার বাজার সংলগ্ন ঘাগটিয়া মৌজার আর এস ৬৫৮ খতিয়ানে ৫৯৫ নং দাগে ২.৪৬ শতাংশ জমি পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত হয়। পান দোকানী শহিদুল্লাহ তার সর্বশেষ সহায় সস্বলটুকু দিয়ে কোন রকমে একটি টিনসেড ঘর বানিয়ে নির্বিঘ্নে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছিল। চলতি বছরের ২০ জানুয়ারী প্রতিবেশী ফজলুল হক ও তার দুই পুত্র রুবেল ও সাইফুলসহ ১০/১৫ জনের একটি সংঙ্গবদ্ধ  সন্ত্রাসী দল প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় অতর্কিতে হামলা চালিয়ে জোরপূর্বক দখল করে নেয়। এর আগে বিবাদীরা শহিদুল্লাহর নিকট থেকে জোর পূর্বক সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়। পরবর্তীতে স্ট্যাম্প উদ্ধারের জন্য গাজীপুরের বিজ্ঞ আদালতে মামলা (নং- ৩৫৫) করলে কাপাসিয়া থানা পুলিশ তা উদ্ধারে অভিযান চালায় এবং আদালত স্ট্যাম্প বাতিল করে আদেশ প্রদান করেন। কিন্ত শহিদুল্লাহ বিবাদীদের ভয়ে তার বয়োবৃদ্ধা মা সহ পরিবারের লোকজনকে নিয়ে পালিয়ে বেড়ায়। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা বিষয়টি মিমাংশা করতে না পারায় বাড়ি পুনরুদ্ধারের জন্য সে গাজীপুর ১ম যুগ্ম-জেলা জজ আদালতে মামলা দায়ের করে। খবর পেয়ে বিবাদী ফজলুল হক গংরা বাড়ি-ঘর ভেঙ্গে আকার আকৃতি পরিবর্তনের চেষ্টা করে। গত ২ নভেম্বর সকালে শহিদুল্লাহ্ তাতে বাঁধা দিলে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে এবং তার উপর হামলা চালায়। ভবিষ্যতে এ বাড়িতে আসলে খুন জখম করে ফেলবে বলে হুমকী প্রদান করে। এ ব্যাপারে কাপাসিয়া থানার ডিউটি অফিসার পিএসআই মানিক জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধে হুমকী ও প্রান নাশের অভিযোগে শহিদুল্লাহ্ বাদী হয়ে ৩ নভেম্বর ফজলুল হক গংদের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়রী করেছে।

Facebook Comments