খালেদা-জিয়ার-বাসার-ফটকে-আদালতের-সমন

0
18
Print Friendly, PDF & Email

রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় আদালতের জারি করা সমন গ্রহণ না করায় তা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবনের ফটকে সাঁটিয়ে দেওয়া হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার পক্ষে কেউ আদালতের সমন গ্রহণ না করায় আদালতের বার্তাবাহক তা বাসার ফটকে সাঁটিয়ে দেন।
গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের নাজির মো. মাসুদ খান প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্যের জন্য খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মমতাজ উদ্দিন আহমদ গত সোমবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে দণ্ডবিধির ১২৩(ক)/১২৪(ক)/৫০৫ ধারায় মামলা করেন। ওই দিন আদালত সমন জারি করে আগামী ৩ মার্চ খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির হওয়ার আদেশ দেন।
ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের নাজির মো. মাসুদ খান প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার স্বাক্ষর করা সমন দিতে আদালতের জারিকারক (বার্তাবাহক) মো. জাবিদ হোসেন দুপুর ১২টার দিকে খালেদা জিয়ার বাসভবনে যান। সমনটি গ্রহণ করানোর জন্য তিনি বিকেল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত চেষ্টা করেন। কিন্তু কেউ গ্রহণ করেননি। পরে তিনি খালেদা জিয়ার বাসভবনের ফটকের পাশে দেয়ালে সমনটি সাঁটিয়ে চলে আসেন।’
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, ‘সরকারের কী কাজ, সরকারই জানে। এ বিষয়ে আমরা কিছু জানি না।’
প্রসঙ্গত, গত ২১ ডিসেম্বর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে খালেদা জিয়া বলেছিলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক আছে। আজকে বলা হয়, এত লাখ লোক শহীদ হয়েছে। এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে।’
এ নিয়ে নানা মহলে আলোচনা-সমালোচনার একপর্যায়ে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে বলেন, মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে খালেদা জিয়ার দেওয়া বক্তব্যের একটি অংশের বিকৃত ব্যাখ্যা করে ক্ষমতাসীন মহল অপরাজনীতিতে মেতে উঠেছে। তিনি শহীদদের প্রতি কোনো ধরনের অসম্মান প্রদর্শন করেননি।

Facebook Comments
শেয়ার করুন