জামালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান (খাইয়ুল আলম)পাচঁ বছরে কোটি টাকার মালিক।

0
28
Print Friendly, PDF & Email

ঘটনার বিবরনে প্রকাশ ও গত ১০ দিনের সরেজমিন প্রতিবেদনে পরো জামালপুর ইউনিয়নে ঘুরে জানা যায় দূধর্ষ আলম চেয়ারম্যানের দূর্নিতীর এক অবিস্মরনীয় ইতিহাস। আর তার এই অপকর্মের সেকেন্ড ইন্ড কমান্ড ছিলো তারই বংশের বাদশা মোড়ল ও দফেদার শহীদুল্লা মোড়ল। এই শহীদুল্লাহ মোড়ল গত বিএনপির আমলে শত শত লোককে পরিষদে ধরে এনে কয়েক কোটি টাকা বানায়।ক্ষমতার পালাবদলের সাথে সাথে এই শহীদুল্লাহ দফেদারকে কাছে টেনে নেয় জামালপুর ইউনিয়নের হিংস্র আলম চেয়ারম্যান। রাতের বেলা চান্দেরবাগ/নারগানা/গেল্লারটেক থেকে অসহায় গরীবের সুন্দরী মেয়েদের ইউপি পরিষদের দোতলায় এনে চালাতো যৌন নির্যাতন আর অমানুষিক নির্যাতন। এই শহীদুল্লাহ দফেদার কতো টাকা ও জমির মালিক তা জামালপুর নয় পুরো কালিগন্জনাসী জানে।কিন্ত কে করবে তার বিচার???? দেশে কি কোন আইন নেই??? এবার আসা যাক ইউপি চেয়ারম্যান খাইয়ুল আলমের কথা। নমিনেশন পাওয়ার আগে সবার সামনে বলে বেড়াতো ৫/১০ কোটি যতো টাকা লাগে সে নৌকা প্রতীক নিয়ে আসবেই। কিন্ত শত চেষ্টা করেও সে নৌকা প্রতীক আনতে ব্যর্থ হয়।অবশেষে সে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয় এবং আত্নগোপনে চলে গেছে। ০৫ বছর আগের খাইয়রুল আলম কি ছিল আর এখন কতো টাকার মালিক??? একটু জানুন কারন এটা সবার মুখে মুখে। জামালপুর ইউনিয়নে ০৭টি আলীশান বাড়ী/পলাশে ০৫ তলা ০১ টি বাড়ী/গাজীপুরে ০৫ তলা বাড়ী/পূবাইল/মিরের বাজার/উওরা/বসুন্ধরায় বাড়ীর মালিক/জামালপুর মধ্যপাড়ায় ১৫ গন্ডা জমির মালিক। বিদেশে লোক পাঠানোর কথা বলে কয়েক কোটি টাকা আত্মসাৎ /চাকুরী দিবে বলে বেশ কিছু পরিবারের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা নিয়ে চাকুরী না দিয়ে টালবাহানা করা এটা কি আল্লার আরস কেপে উঠবেনা???? এর বিচার কি হবেনা কোনদিন???? আল্লাহতালার গজব কি পড়বেনা???? এই প্রশ্ন এখন সবার মনে মনে। “””এবার আসা যাক হিন্দু পরিবারের কথা”””‘ জামালপুর/চান্দেরবাগ/নারগানা/গোল্লারটেক বিচারের নামে প্রহসন করে তার বংশের লোক বাদশা/হাসান ও শহীদুল্লাহ দফেদারকে নিয়ে প্রায় ৯৩ টি জমিতে জোর দখল নিয়ে নাম মাএ মূল্য দিয়ে তার বউ/তার শালা/বাদচা ও আত্নীয় স্বজনের নামে লিখে নেয় ও যে লিখে দিতে অপারকতা প্রকাশ করে তার কাছ থেকে মিনিমাম ১০ লাখ করে টাকা নিয়াসে। চান্দেরনাগ/নারগানা/গোল্লারটেক/দালাননাজার/নগরপাড়া এলাকায় {অাওয়ামিলীগ থেকে আজীবন বহিঃষ্কৃত নেতা খাইরুল আলম} জমিতে খুটি গেড়ে গেড়ে কত টাকা যে নিয়েছে তার হিসেব নেই। কি করে, কেমন করে সে এত টাকার মালিক হয়েছে তার সঠিক তদন্ত করুন। অার যাদের বুকে লাথি মেরে/মানুষকে ফাদে ফেলে/মানুষকে ভয় ও জিম্মি করে যে এতো টালার মালিক হয়েছে তার কি কোন বিচার হবেনা।সকল জনগন খাইরুল আলম/বাদশা/শহীদুল্লাহর বিচার এখন গনদাবী। এই বাদশা জামালপুরে মাদকের ব্যবসার গডফাদার বলে পরিচিত। জালপর স্কুলের পূর্নমিলনী থেকে কয়েক লাখ টাকা আত্মসাৎ ও স্কুল মার্কেটের ৯৬ টি দোকান কান দলীয় নেতা কর্মিদের না দিয়ে তার আত্নীয়স্বজনদের দিয়ে দোকান প্রতি ৫ লাখ টাকা নেয় লিজ দিয়ে। আর এইভাবে সে ০১ কোটি ৩০ লাখ টাকা অবৈধভাবে হাতিয় নেয়। এর কি কোন বিচার কিংবা আদৌ কোন তদন্ত হবেনা???? কালিগন্জ থানা সেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক ও থানা আওয়ামিলীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক বরুনের সাথে রাজনৈতিক দ্বন্দের কারনে তার আপন বড় ভাই সাবেক কেন্রীয় ছাএলীগের সহ সম্পাদক (রিপন রোটন কমিটি)/গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদল (পলাশ ফিরোজ কমিটি-ঢাকা কলেজ ছাএলীগ)/সহ-সভাপতি (সগীর-টুটুল-কমিটি-ঢাকা কলেজ ছাএলীগ) মনিরুজ্জাৃান (অরুনের উপর হামলাকারিদের এক বছর হলেও রহস্যজনক কারনে কেউ এখনো কি কারনে গ্রেফতার হচ্ছেনা তা কারো কাছেই বোধগম্য নয়। এই মামলার আসামি কালা হাসান সন্ধার পর থেকেই ছিনতাই/মানুষকে ঠেক দিয়ে টাকা নেয়া/গাজা/বাবা/ফেন্সির টাকা জোর করে মানুষের কাছ থেকে নেয়। সিগারেট নিয়ে টাকা না দেয়া এখন নিত্য নৈমওিক ব্যাপার হয়ে গেছে।আর এই বাদশা বিদ্রোহী পার্টি খাইয়ুল আলমের নির্বাচন করেও এখন প্রকাশ্যে মাদকের ব্যবসা করে যাচ্ছে। চান্দেরবাগে শেখচান/আফচান সহ তাদের সাত ভাইয়ের কাছ থেকে ৩১ লাখ টাকা জোর করে নিয়ে গেছে।আজ তার পরিবার পথের ভিখারি। আলমের উওরসূরী বাদশা তার বোন আমেনা বেগম ও তার বোনের জামাই মহিউদ্দিনকে দিয়ে একের পর এক ইউনিয়ন পরিষদের পিছনে জমি দখল করে বিল্ডিং উঠাচ্ছে।বাদশার তিন ভাই তিন দল করে। বাদশা করে ছাএলীগ/রাজা থানা ছাএদলের সমাজসেবা সম্পাদক/মনির ও বাবুল কালিগন্জ থানা ছাএশিবিরের সহ-সভাপতি। এটা কি কোন আদর্শের রাজনীতি????? কারন তারা নিজ স্বার্থের জন্য জমি লুটপাট ও এমন কোন কাজ নেই যে করতে পারেনা।চাঁদাবাজির ও টাকার মোহে অন্ধ হয়েই তারা এহেন এহেন এইসব অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে আমাদের বিনীত অনুরোধ দয়া করে আপনি বিষয়গুলো সুষ্ঠ তদন্ত করে দেখবেন আর আমাদের বাচাবেন এটাই একমাএ জনগনের প্রানের দাবী আপনাদের কাছে।

Facebook Comments
শেয়ার করুন