নোংরামি-পর্ন চিন্তা মুক্তচিন্তা নয়

15
Pm hasina BG20160418184957

  ডেস্ক নিউজ : মুক্তচিন্তার নামে গুটিকয়েক লোক ধর্মকে নিয়ে নোংরা-জঘন্য ও পর্ন লিখছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এ ধরনের নোংরামি-পর্ন চিন্তা মুক্তচিন্তা নয়।

সোমবার (১৮ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। এর আগে পহেলা বৈশাখেও প্রধানমন্ত্রী ধর্ম নিয়ে কটূক্তিকারীদের সমালোচনা করেন।

এবারও জোর দিয়ে তিনি বলেন, মুক্তচিন্তা যদি পর্ন চিন্তা হয়, নোংরা, জঘন্য চিন্তা হয়, তবে এটি মুক্তচিন্তা নয়। বিরোধিতা করে মানুষের ধর্ম-বিশ্বাসে আঘাত কাম্য নয়। বর্তমানে মুক্তচিন্তার নামে হচ্ছে নোংরা চিন্তা। আমি বিশ্বাস করি, যার যার ধর্ম তার তার। কাউকে আঘাত করে লিখলেই মুক্তচিন্তা হয়ে যায় না। যারা এসব লিখছেন, তারা রুচিবোধ রেখে লিখুক, তবে তো কোনো সমস্যাই নেই।

এসময় প্রধানমন্ত্রী ব্লগার হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধেও কথা বলেন। তিনি  বলেন, যারা ইসলাম কায়েমের নামে, মানুষকে সঠিক পথে আনার জন্য হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছেন, তারা কোন অধিকারে হত্যা করছেন! আল্লাহ বলেছেন, শেষ বিচারের কথা, তারা হত্যা করে বিচার করার কে! আমরা কোনো ষড়যন্ত্র এদেশে মানবো না। এদেশ শান্তির হবে। সেটাই আমরা প্রতিষ্ঠা করবো।

শেখ হাসিনা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ইঙ্গিত করে বলেন, হাজার কথা বলেও এতিমের টাকা মেরে খাওয়া লোকদের বিচার বিনষ্ট করা যাবে না। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার যেমন হচ্ছে, তেমনিভাবে তাদেরও হবে। জাতির পিতার আদর্শ বুকে নিয়েই আমরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবো। এখানে কোনো বাধা আমরা মানবো না।

১৭ এপ্রিল মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। এতে সভাপতিত্ব করেন দলের সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী।

আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতা-নেত্রীরা সভায় বক্তব্য রাখেন। এদের মধ্যে ছিলেন সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম, সাহারা খাতুন, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা কামরুল ইসলাম, এ কে এম রহমত উল্লাহ, আবুল হাসনাত, শাহে আলম মুরাদ, সাদেক খান প্রমুখ। সভায় সঞ্চালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

Facebook Comments