অবৈধভাবে নেয়া ৩ হাজার বাড়ির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

0
22
Print Friendly, PDF & Email
Gas

গাজীপুরে অবৈধ গ্যাস পাইপ লাইন বিচ্ছিন্নকরণ অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত গাজীপুর সদরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়েছে। গাজীপুর জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ এ অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযানে গাজীপুর সদরের গজারিয়াপাড়া, বাংলাবাজার, রাজেন্দ্রপুর এলাকায় অবৈধভাবে স্থাপিত ১ ইঞ্চি ব্যাসের প্রায় ৩ কিলোমিটার গ্যাস পাইপ লাইন অপসারণ করে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এতে প্রায় সাত শত বাড়ীর অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। এছাড়া বেগমপুর, নয়াপাড়া, হোতাপাড়া এলাকায় অবৈধভাবে স্থাপিত ২ ইঞ্চি ব্যাসের পাইপ লাইনের সংযোগস্থল অপসারণ করে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। ফলে প্রায় ২ হাজার ৫০০ বাড়ীর অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়।

একই সময়ে হোতাপাড়া বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন, মোহাম্মদী রেস্তোরা, কুমিল্লা মায়ের দোয়া হোটেল, ভোজন বিলাশ, যমুনা বেকারী ও আদনান টি স্টল এর অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এসময় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও গাজীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশরাফ উদ্দিন হোতাপাড়া এলাকার মোহাম্মদী রেস্তোরা ও কুমিল্লা মায়ের দোয়া হোটেলকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা এবং আদনান টি স্টল-কে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানের খবর পেয়ে অন্যান্য রোস্তারা ও অবৈধ গ্যাস ব্যবহার কারীরা পালিয়ে যায়।

অভিযান পরিচালনাকালে তিতাস গ্যাস আবিডি-গাজীপুরের মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী এস.এম. আব্দুল ওয়াদুদ, ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী ছাব্বের আহমেদ চৌধুরী প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর আলম, প্রকৌশলী শাবিউল আওয়াল, প্রকৌশলী মো. খোরশেদ আলম, প্রকৌশলী মো. আখেরুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে তিতাস গ্যাসের আবিডি-গাজীপুরের মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী এস.এম. আব্দুল ওয়াদুদ জানান যারা অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ গ্রহণ করেছেন এবং যারা গ্রামের সাধারণ মানুষকে গ্যাসের প্রলোভন দেখিয়ে অনাকাংক্ষিত ভয়াবহ গ্যাস দুর্ঘটনা দিকে ঠেলে দিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং এখন থেকে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় নিয়মিতভাবে অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Facebook Comments