অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টাইগারদের ঐতিহাসিক জয়

48

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্ট জয়ের ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ। মিরপুরে ইংল্যান্ডের পর অজি বধ করলো টাইগাররা। ঢাকা টেস্টে একদিন হাতে রেখে ২০ রানের রোমাঞ্চকর জয় দিয়ে দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল মুশফিকুর রহিমের দল।

বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেওয়া ২৬৫ রানের টার্গেট তাড়া করতে গিয়ে ২৪৪-এ থামে সফরকারীরা (৭০.৫ ওভার)। জশ হ্যাজেলউডকে (০) এলবিডব্লু করে অজি ইনিংসের সমাপ্তি টানেন তাইজুল ইসলাম। সঙ্গে সঙ্গেই বাঁধভাঙা উল্লাসে মাতেন সাকিব-মুশফিক-তামিম-মিরাজ-তাইজুলরা। অজিদের শেষ ভরসা হয়ে থাকা প্যাট কামিন্স ৩৩ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

দুই ইনিংসে ১০ উইকেট নিয়ে ম্যাচ জয়ের নায়ক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় ইনিংসে বাকি পাঁচ উইকেটের মধ্যে তাইজুল তিনটি ও মেহেদি হাসান মিরাজ নেন দু’টি। সাকিব-মিরাজ-তাইজুলদের স্পিন ঘূর্ণিতেই কাবু অজিদের ব্যাটিং লাইনআপ। দুই ইনিংসে ১৯টি উইকেটই (প্রথম ইনিংসে ওসমান খাজা রানআউট) স্পিনারদের দখলে। দ্বিতীয় ইনিংসে পেসার শফিউল ইসলামকে বোলিংয়েই আনেননি অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। মাত্র এক ওভার করেন মোস্তাফিজুর রহমান।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে গত বছরের অক্টোবরে বাংলাদেশের কাছে প্রথমবার টেস্ট ম্যাচে ধরাশায়ী হয় ইংলিশরা। ১-১ সমতায় শেষ হয় সিরিজটি। এবার অজিদের হোয়াইটওয়াশ করার রোমাঞ্চ কাজ করছে সমর্থকদের মাঝে। চট্টগ্রামে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর (সোমবার) দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে।

দীর্ঘ ১১ বছর পর টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। সাদা পোশাকে এ নিয়ে পাঁচবার মুখোমুখি হয়েছে দু’দল। বাংলাদেশের বর্তমান স্কোয়াডের কেউই এর আগে অজিদের বিপক্ষে টেস্ট খেলেননি। আগের চার ম্যাচেই হার মানলেও ২০০৬ সালে ফতুল্লা টেস্টে রিকি পন্টিংয়ের দলকে প্রায় হারিয়েই দিয়েছিল টাইগাররা। জিততেও জিততেও শেষ পর্যন্ত তিন উইকেটের পরাজয় বরণ করতে হয়েছিল। দীর্ঘ সময় পেরিয়ে ফতুল্লায় হাবিবুল বাশারদের সেই অাক্ষেপটা মিরপুরে ঘোঁচালেন মুশফিক-সাকিবরা।

দ্বিতীয় সেশনের প্রথম বলেই গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে (৫) বোল্ড

Facebook Comments