কালীগঞ্জে বিল থেকে বালির বস্তাবাঁধা কৃষকের ভাসমান মরদেহ উদ্ধার

0
43
Print Friendly, PDF & Email

নিখোঁজের একদিন পর কালীগঞ্জ উপজেলার একটি বিল থেকে গলায় বালির বস্তা বাঁধা অবস্থায় অমূল্য চন্দ্র দাস (৫২) নামে এক কৃষকের ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ২৫ সেপ্টেম্বর সোমবার সকালে মরদেহটি উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের ফুলদি উত্তরপাড়া এলাকার হুজুর বিল থেকে উদ্ধার করা হয়। নিহত অমূল্য চন্দ্র দাস নরসিংদীর পলাশ থানার বরাব গ্রামের মৃত মলয় ওরফে বলয় চন্দ্র দাসের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলম চাঁদ জানান, ধারণা করা হচ্ছে দূর্বৃত্তরা তাকে হত্যার পর তার মরদেহটি যাতে ভেসে না উঠে তার জন্য রশিতে বালিভর্তি বস্তা গলায় বেঁধে ওই বিলে ফেলে রেখে গেছে। এটি একটি হত্যাকান্ড বলেই ধারণা তার। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এ হত্যাকান্ডের কারণা জানা সম্ভব হয়নি।

নিহতের মেয়ের জামাই মনোজিত দে জানান, তার শ্বশুর অমূল্যে বিয়ের পর প্রায় ৩৫বছর ধরে তিনি কালীগঞ্জের ফুলদি এলাকার শ্বশুর পেরিমোহন রায়ের বাড়িতেই স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন। এখানে থেকেই তিনি কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তিনি প্রায়ই রাতে বসত ঘরের বারান্দায় ঘুমোতেন। শুক্রবার রাতেও তিনি খাওয়া-দাওয়া সেরে ওই বারান্দায় ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন শনিবার সকালে বাড়ির লোকজন তাকে বারান্দায় দেখতে না পেয়ে আশে-পাশের বিভিন্ন স্থানে এবং স্বজনদের কাছে তার খোঁজ করেন। কিন্তু কোথাও তার সন্ধান মিলেনি। পরে রোববার সন্ধ্যায় নিহতের ভগ্নিপতি প্রদীপ মিত্র কালীগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেন।

সোমবার সকালে স্বজনরা খোজাঁখুঁজির এক পর্যায়ে বাড়ির পাশের হুজুর বিলে তার ভাসমান লাশ দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দিলে সকাল ৯টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

Facebook Comments
শেয়ার করুন