শ্রীপুরে সুইটি হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধন

0
45
Print Friendly, PDF & Email

গাজীপুরের শ্রীপুরে গৃহবধূ সুইটি আক্তার(১৮) এর মৃত্যুকে পরিকল্পিত হত্যাকান্ড দাবি করে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি দিয়েছে তার পরিবার। এ হত্যাকান্ডের বিচার চেয়ে মঙ্গলবার দুপুরে মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে।

মানববন্ধনে নিহতের মা আমিনা খাতুন সাংবাদিকদের বলেন, গত ২৬ সেপ্টেম্বর সোমবার মধ্যরাতে শ্রীপুর উপজেলার ভাংনাহাটি গ্রামের একটি বাড়ি থেকে তাঁর মেয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সে সময় নিহতের স্বামী নাঈম দাবি করেছিল সুইটি আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু নাঈম-সুইটি দম্পত্তির মধ্যে যৌতুকের জেরে বিভিন্ন সময় কলহ লেগেই থাকতো। তা ছাড়া কয়েক মাস ধরে নাঈম পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে পরে বলেও জানা গেছে। এসব বিষয়ের জেরে নাঈম তাঁকে হত্যা করেছে বলে দাবি করেছেন তার মা। এ ঘটনায় সোবার রাতে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগ এনে স্বামী নাঈমসহ ৪জনকে আসামি করে মামলা দায়ের হয়েছিল বলেও তিনি জানান।

নিহত সুইটি উপজেলার লোহাগাছ গ্রামের আ. বারেকের মেয়ে। বিয়ে ৬ মাসের মাথায় পারিবারির কলহে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। তারও ২ মাস পর আবারও তারা একত্রে সংসার করতে থাকে। এ নিয়ে পরিবারে সাথে নাঈমের সম্পর্কের অবনতি ঘটায় তারা ভাংনাহাটি গ্রামের একটি ভাড়া বাড়িতে গিয়ে উঠে। সেখানে ২৬ সেপ্টেম্বর সোবমার রাতে সুইট আত্মহত্যা করেছে খবর পেয়ে পুলিশ রাত ৩টায় লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) সৈয়দ আজিজুল হক বলেন, এ ঘটনায় মালার প্রধান আসামিকে প্রেফতার করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার বলেন, দুপুরে নিহতের পরিবার আমার কাছে আসে। আমি ঘটনার ন্যায় বিচারের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থা করবো। ময়নাতদন্ত রিপোট সাপেক্ষে এ ঘটনার উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments
শেয়ার করুন