“আর নয় কুকুর আতংক রোধ হবে জলাতঙ্ক” শ্রীপুরে উপজেলা অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত

0
43
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোটার্স ঃ
২০২২সালের মধ্যে দেশ থেকে জলাতঙ্ক নির্মুলের লক্ষ্যে গাজীপুর জেলায় ব্যপক হারে কুকুরের টিকাদান কর্যক্রম সফল ভাবে পরিচালনার জন্য শ্রীপুর উপজেলায় অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৮মার্চ বুধবার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্দ্যোগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মিলনায়তনে এসভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ মইনুল হক খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. হেলাল উদ্দিন , উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা আঃ জলিল, গোসিংগা ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান সরকার প্রমূখ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. হেলাল উদ্দিন বলেন জলাতঙ্ক রেবিস ভাইরাসের আক্রমনে কুকুর, বিড়াল, বানর, শিয়াল, বেজি, বাদুর আক্রান্ত হয়। এসকল পশু দ্বারা আক্রান্ত মানুষের এরোগে মৃত্যু অনিবার্য। প্রতি বছর বাংলাদেশে দুই হাজার মানুষ জলাতঙ্ক রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। ২০২২সালের মধ্যে এসংখ্যা শূণ্যে কোঠায় নিয়ে আসতে প্রতিটি কুকুরকে জলাতঙ্ক প্রতিষেধক ভ্যাকসিন দেওয়া জরুরী। দেশে ১২ থেকে ১৫ লক্ষ কুকুর রয়েছে। ইতিমধ্যে ৩লাখ ৪০হাজার কুকুরকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। গাজীপুরের সিটি, পৌরসভাসহ প্রতিটি উপজেলার ইউনিয়নের প্রতিটি কুকুরকে এভ্যাকসিনের আওতায় আনার লক্ষ্যে কাজ করছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার বলেন, ২০২২সালের মধ্যে যন্ত্রাদায়ক মরণব্যাধি জলাতঙ্ক রোধকল্পে শ্রীপুরে আগামী ৩১মার্চ হতে ৪এপ্রিল পর্যন্ত উপজেলার একটি পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়নের ঘরে ঘরে গিয়ে স্বাস্থ্য কর্মিরা কুকুরকে ভ্যাকসিন দিবে। যাতে একটি কুকুরও ভ্যাকসিন থেকে বাদ না যায় এজন্য এলাকার জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিকসহ প্রতিটি শ্রেণীপেশার মানুষকে একাজে স্বাস্থ্য কর্মিদের সাথে কাজ করার আহবান জানান তিনি।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বলেন, ২০১৫সালে শ্রীপুরে ২হাজার কুকুরকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হয়েছিল। একার্যক্রম চলাকালিন সময়ে স্বাস্থ্য কর্মিসহ যে কেউ আক্রান্ত হলে সাথে সাথে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।
শ্রীপুর, গাজীপুর।

Facebook Comments
শেয়ার করুন