বর্ষ ১ - সংখ্যা ৪৯

সংবাদ শিরোনাম :
মার্চেই প্রাথমিকে ১৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ::. গাজীপুরে অস্ত্র ও গুলিসহ ৬ ডাকাত আটক ::. গাজীপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আ.লীগ প্যানেল জয়ী ::. গাজীপুরের শ্রীপুরে সড়কে গর্ত ও ধুলায় জনদুর্ভোগ চরমে ::. গাজীপুরের ‘জাগ্রত চৌরঙ্গী’ এখন মূত্রত্যাগীদের পাবলিক টয়লেট !! ::. কালিয়াকৈরে কবরস্থানের জমিতে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ ! ::. উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী ড. মেঘনাদ সাহার স্মরণ সভা পালিত ::. শ্রী শ্রী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান ও অষ্টকালীন লীলা কীর্তন অনুষ্ঠিত ::. মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানির দ্বার উন্মোচন ::. পুলিশি হামলা : দুঃশাসনের বহিঃপ্রকাশ : বিএনপি ::. বুড়িগঙ্গার সীমানা নির্ধারণ ও দখলদার উচ্ছেদের দাবি ::. রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরার অধিকার রয়েছে ::. সার্বভৌম সম্পদ তহবিল গঠন করতে যাচ্ছে সরকার ::. শ্রীপুরে খোলা জায়গায় পোল্ট্রি ফার্মের বর্জ্যে : দূষিত হচ্ছে পরিবেশ ::. কালিয়াকৈরে দুটি ঝুটের গুডাউনে অগ্নিকান্ড ::.
A+ A A-

গাজীপুরে ৩০দিনে ৩০ খুন

Gazipur Sadar Mapগাজীপুর মহানগরসহ জেলায় খুন আশংকা জনক ভাবে বেড়ে চলেছে।পাশাপাশি ধর্ষণ,শ্লীলতাহানি,শিশুহত্যা-নির্যাতন,ডাকাতি-ছিনতাই প্রভৃতি অপরাধও বৃদ্ধি পেয়েছে।একের পর এক এসব অধিকাংশ খুনের ঘটনার কোন রহস্যের কিনারা হচ্ছে না।ফলে জনমনে উদ্বেগ ও আতংক বেড়েই চলছে।প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী গত ৩০দিনে গাজীপুরে খুন হয়েছে ৩০ জন।অনুসন্ধানে দেখা গেছে,চলতি বছরে গত ৩ মার্চ থেকে ৩এপ্রিল পর্যন্ত ৩০দিনে শিশুসহ ৩০জন খুন হয়েছে।

গত ৩ এপ্রিল (রোববার) নগরীর সালনা কাথোরার মৈশানবাড়ি এলাকায় পরেশ চন্দ্র ঘোষ (৬৫) নামে একজন মুক্তিযোদ্ধা আততায়ীর গুলিতে নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় তার ছেলে গৌতম চন্দ্র ঘোষ জয়দেবপুর থানায় হত্যা মামলা করেছে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, কয়েকদিন আগে বাড়ির পাশের একটি রাস্তায় গাড়ি চালানোকে কেন্দ্র স্থানীয় যুবক প্রদীপের সঙ্গে তার বিবাদ হয়। ওই সময় প্রদীপ তাকে গালাগাল করে এবং মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এর দু’দিন পরই তার বাবা খুন হওয়ায় সে-ই বাবাকে খুন করেছে বলে আমার ধারণা।

তবে এলাকাবাসী ও পুলিশ এটিকে ডাকাতি বলে জানায়। জয়দেবপুর থানার ওসি খন্দকার রেজাউল হাসান জানান, এই ঘটনায় প্রদীপ মমন্ডল (২৭) ও মঞ্জুর আলম (২৫) নামে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জড়িত অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

গাত ১৪ এপ্রিল গাজীপুরে পিতার হাতে পুত্র খুন হয়েছে।নিহতের নাম মোঃ রাজিব মিয়া(৩০)।সে গাজীপুর মহানগরের দক্ষিণ খাইলকুর এলাকায় খলিলুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, বুধবার সন্ধ্যায় পারিবারিক বিষয় নিয়ে পিতা-পুত্রের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।এক পর্যায়ে খলিলুর রহমান ধারালো ছুরি দিয়ে রাজিবের বুকে আঘাত করে। পরে স্বজনরা আহতাবস্থায় রাজিবকে উদ্ধার করে গাজীপুরের বোর্ডবাজারের তায়রুননেছা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হাসপাতালে নিয়ে যায়।সেখান থেকে ১০টার দিকে গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজিবকে মৃত ঘোষণা করেন।তার তিন বছরের একটি কণ্যা সন্তান রয়েছে।

Like Us!


জয়দেবপুর থানার এসআই আজিজুর রহমান জানান, পারিবারিক কলহের জেরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

গাত ১৫ এপ্রিল গাজীপুর মহানগরীর হাতিয়াবহ এলাকা থেকে শারমিন আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার গলা, হাটু ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।এ ঘটনায় নিহতের স্বামী আবদুর রহিম, শ্বশুর মো. ইব্রাহীম ও শ্বাশুড়ি তাছলিমা বেগমকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত শারমিন গাজীপুর মহানগরীর বোর্ড বাজারের উত্তর খাইলকুর এলাকার মৃত দুলাল মিয়ার মেয়ে।

জয়দেবপুর থানার এসআই সুজায়েত হোসেন জানান, চার বছর আগে রহিমের সাথে শারমিনের বিয়ে হয়। সংসারে তাদের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থকে রহিম যৌতুকের জন্যে স্ত্রীকে প্রায়ই মারধর করত। শুক্রবার দুপুরে রহিম তাকে বেধড়ক মারধর করে। এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে বিকেলে বাড়ির উঠান থেকে শারমিনের লাশ উদ্ধার করা হয়। তার গলায় কালচে দাগসহ, হাটু ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

তিনি আরো জানান, বাড়িতে গেলে রহিমের পরিবারের লোকজন জানায়, মারধোরের কারনে অভিমানে শারমিন আত্মহত্যা করেছে। গলায় দড়ি লাগিয়ে ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুঁলতে দেখে তারা নামিয়ে দেখতে পান শারমিনের মৃত্যু হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্যে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে ওই তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

এদিকে ৭ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) নগরীর টেকনগপাড়া এলাকার একটি কালভার্ডের নিচ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় তিন বছর বয়সী এক কন্যা শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। জয়দেবপুর থানার দারোগা এসআই ফিরোজ জানান, শিশুটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

কালিয়াকৈরের বরিয়াবহ এলাকায় রত্নার বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে স্বামী আবুল হাসেম। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গাজীপুরের ইনস্পেক্টর হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, স্ত্রী হত্যার দায় স্বীকার করে স্বামী আবুল হাসেম গত ৬ এপ্রিল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। উপজেলার ফুলবাড়িয়া নাবিরবহ এলাকায় মনিরা (৩০) নামের অপর এক গৃহবধূকেও শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে নিহতের পিতা মনির উদ্দিন মিয়া গত ৬ এপ্রিল জানিয়েছেন। স্বামী মোশাররফ হোসেনসহ আত্মীয়-স্বজনরা মনিরাকে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখে বলে তিনি অভিযোগ করেন। কালিয়াকৈর থানার ওসি মোতালেব মিয়া জানান, ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলেই পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। রত্নার স্বামী মোশারফ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছে।

এর আগে গত ১ এপ্রিল ২৫ বছর বয়সী এক যুবককে খুন করেছে দুর্বৃত্তরা। গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী ভাদাম এলাকার একটি ডোবা থেকে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার পরিচয় পাওয়া যায়নি। তার পরণে শার্ট ও প্যান্ট ছিল। টঙ্গী থানার দারোগা শাহীন জানান, লাশের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

অন্যদিকে কাপাসিয়ার নরসিংহপুর গ্রামে ১৩ বছরের কিশোরী জান্নাতুল ফেরদৌসকে তার মা ফাতেমা (৩৫) ও প্রেমিক ফাইজুদ্দিন মিলে গলা টিপে হত্যা করেছে। জান্নাতুল ফেরদৌসের বাবা হারুন অর রশীদ সৌদি প্রবাসী। মায়ের পরকীয়া দেখে ফেলায় জান্নাতুলের এ পরিণতি বলে অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া কালীগঞ্জে চিত্তরঞ্জন শীল (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে দুর্বৃত্তরা খুন করেছে বলে তার স্ত্রী অঞ্জনা রাণী অভিযোগ করেছেন। অতি স¤প্রতি অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে নিহত চিত্তরঞ্জন শীল জামালপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী খায়রুল আলমের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। তার শরীরের একাধিক স্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল। অভিযোগ উঠেছে, প্রতিপক্ষ ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর লোকেরা তাকে হত্যা করেছে। তবে কালীগঞ্জ থানার ওসি জানান, পুলিশের ধারণা চিত্ত রঞ্জন পারিবারিক কলহের কারণে আত্মহত্যা করেছে।

এর আগে ২২ মার্চ (মঙ্গলবার) রাতে গাজীপুর নগরীর কুনিয়া টেকপাড়া এলাকায় রফিকুল ইসলাম (৩৮) নামে এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঋণের ৩৫ হাজার টাকা নিয়ে বাকবিত-তার এক পর্যায়ে তার খালাত ভাই মজিবুর রহমান ও তার লোকজন রফিককে পিটিয়ে হত্যা করে। নিহত রফিক মুরগী ব্যবসায়ী। তার পিতার নাম জুলহাস মিয়া।

সবচেয়ে লোমহর্ষক ঘটনাটি ঘটে কালিয়াকৈর উপজেলার কাঁচারস এলাকায়। বাগানের বাঁশ কাটা নিয়ে বিরোধের জের ধরে মা আনোয়ারা বেগমকে (৬৫) দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে শাহজাহান হোসেন সাজু (৪০)। কালিয়াকৈর থানার ওসি জানান, এ ঘটনায় হত্যা মামলা হয়েছে। ঘাতক শাহজাহান ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছে।

গত ১৮ মার্চ রাতে গাজীপুর নগরীর বরুদা এলাকায় নিজ বাসভবনে খুন হয়েছেন সোনালী ব্যাংক গাজীপুর মূখ্য আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রিন্সিপাল অফিসার গিয়াস উদ্দিন (৬০)। তার ছোট ভাই ইসলামী ব্যাংকের কর্মকর্তা মহিউদ্দিন খান জানান, ভাবী জাহানারা (৫০), ছেলে শাহরিয়ার মানিক (৩০) ও শ্যালিকা পারভিন আক্তার (৪০) মিলে সম্পত্তির লোভে তাকে হত্যা করেছে। স্ত্রী পক্ষের আত্মীয়-স্বজন এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। জয়দেবপুর থানার দারোগা এসআই হুমায়ুন কবির জানান, ময়না তদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

গত ১৯ মার্চ গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভা এলাকার একটি খাল থেকে শনিবার অজ্ঞাত এক নারীর ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে শ্রীপুর মডেল থানা পুলিশ।

শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া দান্ডি খন্ড এলাকায় নোমান গ্রুপের আনোয়ারা মান্নান স্পিনিং মিল কারখানার পেছনের খালে নারীর লাশ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। পরে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুছ ছাত্তার অজ্ঞাত ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। লাশের ডান হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পরনে প্রিন্টের কামিজ এবং তার দুই পা পরনের সালোয়ার দিয়ে বাঁধা ছিল। ধারনা করা হচ্ছে দুর্বৃত্তরা নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষনের পর হত্যা করে লাশ ওই খালের পানিতে ফেলে রেখে গেছে। পরে লাশ ভেসে ওঠে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে খুন হন কালিয়াকৈরে প্রতিষ্ঠিত পল্লী বিদ্যুৎ ইন্টারস্টপ অ্যাপারেলস লিমিটেডের ফিনিশিং কোয়ালিটি কর্মকর্তা দীপক কুমার সাহা (৩৩)। গত ৫ মার্চ রাত ৯ টায় তিনি কর্মস্থল থেকে বাসার উদ্দেশে বের হন। দুদিন পর ওই কারখানর অভ্যন্তরে নির্মাণাধীন একটি ভবনের লিফটের গর্ত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কালিয়াকৈর থানা ওসি জানান, তার ঠোঁট, কনুই ও হাঁটুতে আঘাতে চিহ্ন ছিল।

গত ৬ মার্চ খুন হয় ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া থানার এনায়েতপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী হাসিনা আক্তার (৩২) জয়দেবপুর থানার এসআই রুহুল আমীন জানান, দু’সন্তানকে নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বাড়ীয়ালী গ্রামের শামীমার বাড়িতে ভাড়া থাকতো হাসিনা আক্তার। হাসিনা স্থানীয় বারবৈকা এলাকার ড্যান্ডি সোয়েটারস লিমিটেড কারখানার কর্মী। ঘটনার দিন শনিবার সন্ধ্যায় ছুটি শেষে কারখানা হতে সে বাসার উদ্দেশ্যে রওনা হলেও রাতে বাসায় ফিরে আসেনি। স্বজনরা খোঁজাখুঁজি করে পরদিন রবিবার সকালে বাসার কাছে সিনকি এ্যাপারেল্স কারখানার সামনে সড়কের পাশের একটি নীচু জমিতে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় হাসিনার লাশ দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। নিহতের গলায় ও শরীরে আঘাতে চিহ্ন রয়েছে। তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে গত ৩ মার্চ (বৃহস্পতিবার) গাজীপুরের শ্রীপুরে শাহীন নামে আট বছরের এক স্কুলছাত্রকে খুন করা হয়েছে। তার পিতা এমদাদুল হকের সহকারী পাপ্পু (১৮) তাকে খুন করেছে বলে শ্রীপুর থানা পুলিশ জানিয়েছে।

এছাড়াও স¤প্রতি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দলীয় দুই কাউন্সিলর মামুন ম-ল ও সানাউর রহমান গ্রুপের লোকজনের মধ্যে ব্যাপক গুলি বর্ষণের হোতারা এখনও গ্রেফতার হয়নি। উদ্ধার হয়নি সংঘর্ষে ব্যবহৃত অবৈধ অস্ত্রও। এনিয়েও জনমনে আতঙ্ক রয়েছে।

এসব খুনাখুনি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। গাজীপুরের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও এনজিও এবং মানবাধিকার সংস্থা অপরাধ বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এমনকি জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় অংশগ্রহণকারী অনেক সদস্য আইনশৃঙ্খলা অবনতির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

কালিয়াকৈর উপজেলা থেকে সরকার নিট নামে একটি তৈরি পোশাক কারখানার ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলামকে (৩৫) শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

গত ১০ এপ্রিল (রোববার) সকালে তার লাশ উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

কালিয়াকৈর থানার এসআই মনিরুল ইসলাম বলেন, শফিকুল ইসলাম কারখানার ভেতরেই একটি কক্ষে বসবাস করতেন। শনিবার রাতে কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা তার গলায় শার্ট পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করে। খবর পেয়ে রোববার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে কারখানার মালিক এবং অন্যান্য কর্মকর্তা পলাতক রয়েছেন বলে জানান মনিরুল ইসলাম।

সর্বশেষ ১৭ এপ্রিল দিবাগত রাতে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এক ব্যাবসায়ী নিহত হয়েছে। তার নাম আব্দুল খালেক (৫৫)। সে কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাকের বরাব এলাকার মৃত জমির উদ্দিনের ছেলে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আব্দুল মোতালেব মিয়া জানান, কালিয়াকৈরের বরাব এলাকায় নিজ বাড়ির পাশে আব্দুল খালেকের মুদি দোকান রয়েছে। এ ছাড়াও তার কয়েকটি গাভী রয়েছে। প্রতিরাতের মতো সেগুলো পাহাড়া দিতে রবিবার দিবাগত মধ্য রাতে খালেক ঘর থেকে বের হন। সোমবার ভোর রাত তিনটার দিকে বাড়ির পাশে গোঙানির শব্দ পেয়ে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গিয়ে তাকে গুরুতর আহতাবস্থায় দেখতে পায়। পরে আহত খালেককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ সোমবার তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। নিহতের কপালে ও নাকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা তাকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত করে ফেলে পালিয়ে যায়। এঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।বিডিসংবাদ