বর্ষ ১ - সংখ্যা ৪৯

সংবাদ শিরোনাম :
মার্চেই প্রাথমিকে ১৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ::. গাজীপুরে অস্ত্র ও গুলিসহ ৬ ডাকাত আটক ::. গাজীপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আ.লীগ প্যানেল জয়ী ::. গাজীপুরের শ্রীপুরে সড়কে গর্ত ও ধুলায় জনদুর্ভোগ চরমে ::. গাজীপুরের ‘জাগ্রত চৌরঙ্গী’ এখন মূত্রত্যাগীদের পাবলিক টয়লেট !! ::. কালিয়াকৈরে কবরস্থানের জমিতে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ ! ::. উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী ড. মেঘনাদ সাহার স্মরণ সভা পালিত ::. শ্রী শ্রী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান ও অষ্টকালীন লীলা কীর্তন অনুষ্ঠিত ::. মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানির দ্বার উন্মোচন ::. পুলিশি হামলা : দুঃশাসনের বহিঃপ্রকাশ : বিএনপি ::. বুড়িগঙ্গার সীমানা নির্ধারণ ও দখলদার উচ্ছেদের দাবি ::. রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরার অধিকার রয়েছে ::. সার্বভৌম সম্পদ তহবিল গঠন করতে যাচ্ছে সরকার ::. শ্রীপুরে খোলা জায়গায় পোল্ট্রি ফার্মের বর্জ্যে : দূষিত হচ্ছে পরিবেশ ::. কালিয়াকৈরে দুটি ঝুটের গুডাউনে অগ্নিকান্ড ::.
A+ A A-

ডিসেম্বরে বিনামূল্যে স্তন ক্যান্সার পরীক্ষার ঘোষণা

Untitled 7আসন্ন বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে ক্যান্সার ইন্সটিটিউটসহ দেশের সব সরকারী মেডিকেল কলেজে নারীদের জন্য বিনামূল্যে স্তন ক্যান্সার পরীক্ষা করার ঘোষণা দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

শুক্রবার রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সম্মেলন-২০১৫ এর উদ্বোধন করে তিনি এ ঘোষণা দেন।

বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল সময় টিভির এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউট বলছে, বাংলাদেশে ২৫ শতাংশ নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত, যাদের বয়স ৪০ বছরের নিচে। এ রোগ সনাক্ত হতে দেরি হবার কারণ হিসেবে উঠে এসেছে, ৫০ শতাংশ রোগী হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা নেন, বাকীরা অর্থনৈতিক সঙ্কট, পরিবারের অসহযোগিতা ও লজ্জায় বিষয়টিকে অবহেলা করেন।

প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, মার্কিন ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ডা. রিচার্ড লাভ বলেন, ‘উন্নয়নশীল দেশগুলোতে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তদের ক্ষেত্রে দরিদ্রতা দূর, সচেতনতা সৃষ্টি ও সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।’

এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম দেশে স্তন ক্যান্সার পরিস্থিতি তুলে ধরে বলেন, ‘নারীদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টিই হতে পারে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধে একটি বড় হাতিয়ার।’

ক্যান্সার চিকিৎসক ও সোসাইটি অব সার্জনদের যৌথ উদ্যোগে দিনব্যাপী এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সম্মেলনে চারটি দেশের মোট ১৪ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অংশ নেন।