বর্ষ ১ - সংখ্যা ৪৯

সংবাদ শিরোনাম :
মার্চেই প্রাথমিকে ১৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ::. গাজীপুরে অস্ত্র ও গুলিসহ ৬ ডাকাত আটক ::. গাজীপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আ.লীগ প্যানেল জয়ী ::. গাজীপুরের শ্রীপুরে সড়কে গর্ত ও ধুলায় জনদুর্ভোগ চরমে ::. গাজীপুরের ‘জাগ্রত চৌরঙ্গী’ এখন মূত্রত্যাগীদের পাবলিক টয়লেট !! ::. কালিয়াকৈরে কবরস্থানের জমিতে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ ! ::. উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী ড. মেঘনাদ সাহার স্মরণ সভা পালিত ::. শ্রী শ্রী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান ও অষ্টকালীন লীলা কীর্তন অনুষ্ঠিত ::. মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানির দ্বার উন্মোচন ::. পুলিশি হামলা : দুঃশাসনের বহিঃপ্রকাশ : বিএনপি ::. বুড়িগঙ্গার সীমানা নির্ধারণ ও দখলদার উচ্ছেদের দাবি ::. রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরার অধিকার রয়েছে ::. সার্বভৌম সম্পদ তহবিল গঠন করতে যাচ্ছে সরকার ::. শ্রীপুরে খোলা জায়গায় পোল্ট্রি ফার্মের বর্জ্যে : দূষিত হচ্ছে পরিবেশ ::. কালিয়াকৈরে দুটি ঝুটের গুডাউনে অগ্নিকান্ড ::.
A+ A A-

সিএনজি অটোরিক্সা চালক-মালিকদের অবরোধ; ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ৩০ কি:মি: যানজট

CNG-STRIKEস্টাফ রিপোর্টার: শ্রীপুর উপজেলায় ২ আগষ্ট রবিবার দুপুরে সিএনজি অটোরিক্সা চালক-মালিকরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এতে প্রায় ১ ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। মহাসড়কে ৩০ কি: মি: পথে সৃষ্ট হয় যানজটের, আটকা পড়ে শতশত যানবাহন। দুর্ভোগে পড়ে হাজার হাজার যাত্রী। পুলিশ অবরোধকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। সিএনজি অটোরিক্সা চালক-মালিকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ১ আগস্ট থেকে মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় তারা দিনভর পুলিশী হয়রানির শিকার হয়। পুলিশের হয়রানি বন্ধ, মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচলে অনুমতি ও পৃথক লেনের দাবীতে রবিবার দুপুরে উপজেলার প্রায় দেড় হাজার সিএনজি অটোরিক্সার চালক-মালিক ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের জৈনা বাজার, এমসি বাজার, মাওনা ফ্লাইওভারের দক্ষিন পাশে ও মাস্টারবাড়ী এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এতে মহাসড়কে প্রায় এক ঘন্টা যানচলাচল বাধাগ্রস্থ হয়। অবরোধের ফলে রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তা থেকে ভালুকার সিডষ্টোর পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। আটকা পড়ে শতশত যানবাহন। দূর্ভোগে পড়ে হাজার হাজার যাত্রী। সিএনজি অটোরিক্সার মালিক ও চালক মো: ছামাদ, রফিকুল, মজিবুর, আরিফুল ইসলাম, নছুম উদ্দিন, মফিজ উদ্দিনসহ আরও অনেকে জানায়, ১ আগস্ট থেকে মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় যাত্রীরা চরম বিপাকে পড়েছে। তাদের পক্ষে মালিকদের জমার টাকা প্রদান করা সম্ভব হয়নি। উপরন্ত দিনভর পুলিশের হয়রানির স্বীকার হতে হয়েছে তাদের। মাওনা হাইওয়ে থানা পুলিশ প্রায় অর্ধশত সিএনজি অটোরিক্সার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এছাড়া সিএনজি অটোরিক্সা ধরে ধরে ৫’শ থেকে ১’ হাজার টাকার বিনিময়ে অনেককে আবার ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। মহাসড়ক ছাড়া সিএনজি পাম্প না থাকায় গ্যাস ভর্তে না পেরে দুপুরের মধ্যেই উপজেলার ১০টি আভ্যন্তরীন সড়কে সিএনজি  চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিপাকে পড়ে হাজার হাজার যাত্রী। এদিকে সিএনজি মালিকরা জানায়, অনেকেই ঋনের মাধ্যমে সিএনজি কিনেছেন। মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল বন্ধ হলে তাদের পক্ষে ঋনের টাকা পরিশোধ করা সম্ভব হবে না। মাওনা হাইওয়ে থানার ওসি হেলালুল ইসলাম জানান, সরকারের নির্দেশেই মহাসড়কে সিএনজি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। চালকদের হয়রানির বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

এদিকে বেলা ১১টায় গাজীপুর মহানগরের শিববাড়ি থেকে স্থানীয় সিএনজি অটোরিকশা চালক ও মালিকদের একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে রাজবাড়ি রোড হয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। বিক্ষোভ শেষে সেখানে এক প্রতিবাদ সামবেশ করেন বিক্ষোভকারীরা। এ ঘটনায় মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে বিচ্ছিন্নভাবে সড়ক অবরোধও হয়। ফলে বিভিন্ন স্থানে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।